49197_0নীলফামারী সংবাদাতাঃ ভারপ্রাপ্ত আর অবসরে যাওয়া চিকিৎসক দিয়ে চলছে নীলফামারী জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের স্বাস্থ্য সেবার কার্যক্রম। জেলার ছয়টি উপজেলায় মেডিক্যাল অফিসারের সৃষ্ট ১১টি পদের মধ্যে ১০টি পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য থাকায় মাঠ পর্যায়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠি তাদের কাক্সিখত সেবা থেকে পুরোপুরি বঞ্চিত হচ্ছে।

নীলফামারীর ছয়টি উপজেলায় পরিবার পরিকল্পনা অফিসের ক্লিনিক্যাল বিভাগে মেডিকেল অফিসারের (এমসিএইচ-এফপি) ১১টি সৃষ্ট পদ থাকলেও বর্তমানে সৈয়দপুর উপজেলায় মাত্র একজন মেডিকেল অফিসার কর্মরত রয়েছেন।

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রনসহ স্বাস্থ্য সেবার মান নিশ্চিত করতে মেডিকেল অফিসারগন স্ব-স্ব দপ্তরে বসে দাপ্তরিক কাজ এবং ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে কর্মরত পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাদের দাপ্তরিক কার্যক্রম মনিটরিং করে থাকেন। দীর্ঘদিন এসব গুরত্বপূর্ন পদগুলো শূন্য থাকায় ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে কর্মরত পরিবার কল্যাণ পরিদশিকা গ্রামের দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে সেবা দিতে হিমসিম খাচ্ছে।

সম্প্রতি অবসরে যাওয়া মেডিকেল অফিসারদের মাধ্যমে জোড়াতালি দিয়ে একদিন স্থায়ী পদ্ধতি ও ইমপ্লানন পদ্ধতির সেবা প্রদানসহ অন্যান্য সেবা প্রদান করা হলেও ইউনিয়নের দম্পতিরা পদ্ধতি গ্রহণের পরবর্তীতে শারিরীক সমস্যার সম্মুখিন হলেও তারা চিকিৎসক অভাবে তাদের কাক্সিখত সেবা পাচ্ছেন না। বছরের বিভিন্ন সময় সরকারের দেয়া সেবামূলক কর্মসূচীগুলো মেডিকেল অফিসারের অভাবে দায়সারাভাবে পালিত হচ্ছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য