রয়েল টাইগার নাট্যযুদ্ধের ফলাফলের প্রতিবাদে মানববন্ধনঠাকুরগাঁও সংবাদাতাঃ এটিএন বাংলা টিভি চ্যানেলে প্রচারিত রয়েল টাইগার নাট্যযুদ্ধে প্রশংশিত হওয়ার পরও ফলাফলের নামে ষড়যন্ত্র, কারচুপি ও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে ঠাকুরগাঁও নাট্যদলকে পরাজিত করার  প্রতিবাদে সোমবার ঠাকুরগাঁওয়ে মানবন্ধন কর্র্মসূচি পালন করেছে জেলা নাট্যামোদী দর্শক ফোরাম।
শহরের প্রাণকেন্দ্র চৌরাস্তা মোড়ে ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে নাট্যকর্মী,নাট্যমোদি দর্শক সহ সর্বস্তরের জনগণ অংশ নেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন,মাসুদ আহম্মদ সুবর্ন,নাট্যকার ফজলে ইমাম বুলবুল,টাইমটিভির ক্যাবল নেটওয়ার্কের পরিচালক রমযান আলী,নাট্যকর্মি নূরে আলম উজ্জল,এটিএন বাংলা নাট্য যুদ্ধে অংশগ্রহনকারি অভিনেতা এসএম জসিম উদ্দাীন প্রমুখ।
বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, নাট্যযুদ্ধের ২য় রাউন্ডে সারা দেশের ২০ দল মনোনীত  হলে তারা ১৫ মিনিটের নাটক নির্মাণের সুযোগ পায় দেড় দিন। অথচ ১ম রাউন্ডে ৮ মিনিটের নাটক নির্মাণের জন্য সময় দেওয়া হয়েছিল ৩ দিন। এ ছাড়া নির্দেশকের উপস্থিতির কোনো সুযোগ না দিয়ে কর্তৃপক্ষ নিজেরাই যাচ্ছে তাই এডিটিং ও সাউন্ড সংযোগ করে। এতে নাটকের মান ক্ষুন্ন হয়। ২য় রাউন্ডে ২টি দলের মধ্যে প্রতিযোগিতা ও ১৩ জুন ফলাফল ঘোষণার অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়। সেখানে দেখা যায়, কোনো দল কত এসএমএস বা বিচারকের বিচারে কে কত নম্বর পেয়েছে তা সম্পূর্ণ গোপন রেখে অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ও নকল স্ক্রিপ্ট দিয়ে নাটক নিমার্ণকারী সুনামগন্জ নাট্য দলকে বিজয়ী ঘোষণা করে। ঠাকুরগাঁও নাট্যদল ব্যাপক প্রশংসিত ও এসএমএস পাওয়ার পরও অনুপস্থিত সুনামগন্জ নাট্র দলকে বিজয়ী ঘোষণা করে ঠাকুরগাঁও দলকে পরাজিত ঘোষণা করা হয়। এতে বিতর্ক সৃষ্টি হয়।
মানববন্ধন কর্মীদের দাবির মুখে শহরের দুটি ক্যাবল নেটওয়ার্ক কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষনিকভাবে এটিএন বাংলা চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য