Loadshadingঘোড়াঘাট প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে দীর্ঘ এক মাস যাবৎ বিদ্যুৎ বিভ্রান্তে জনগন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি গ্রীড থেকে দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার ডুগডুগির হাট পর্যন্ত নতুন লাইন সংযোগ নির্মাণ করা হলেও একটু বাতাস বা বৃষ্টি হলেই বিদ্যুতের পোলের ইন্সুলেটার নষ্ট হয়ে যায়। এ লাইনে নিু কোয়ালিটির তার ও ইন্সুলেটার সরবরাহ করায় হিলি, ডুগডুগিরহাট,ভাদুরিয়া বাজার, রানীগঞ্জ, ওসমানপুর ও ঘোড়াঘাট পৌর এলাকার মধ্যে প্রতিনিয়ত বিদ্যুৎ বিভ্রান্তসহ বিদ্যুতের তার ছিড়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকে। এতে করে চরম ভ্যাপসা গরমে স্থানীয় জনগন ও ব্যাংক বিমা অফিস আদালতের কাজ করতে অনিহা প্রকাশ করছে। এ ব্যাপারে আমাদের প্রতিনিধি বিদ্যুৎ কর্মকর্তা জিএম ও ডিজিএম সাহেবের সাথে কথা বললে, তিনি জানান গাইবান্ধা পলাশবাড়ি থেকে ঘোড়াঘাটে বিদ্যুৎ লাইনে ঠিকাদারের মাধ্যমে কাজ করাই উক্ত ঠিকাদার নিু কোয়ালিটির ইন্সুলেটার ও তার সরবরাহ করায় একটু বৃষ্টি বা বাতাস হলেই ইন্সুলেটার ফেটে যায়, যার কারণে ঘোড়াঘাটে বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভ্রান্ত হচ্ছে। বিদ্যুৎতের ঠিকাদার সম্পূর্ণ বাংলাদেশী নিু কোয়ালিটির মানের মালামাল দিয়ে সংযোগ নির্মাণ করাই ঘোড়াঘাটের জনগন বিদ্যুৎ বিভ্রান্ত ভোগান্তির মধ্য পড়েছে। পল্লী বিদ্যুৎ এক চাটিয়া তাদের মন গড়া ব্যবসা করে ঘোড়াঘাটের জনগনকে স্বশন করে ফেলছে। তারা মন গড়া বিদ্যুতের মিটার চার্জ, ভ্যাট, টেক্স সমস্ত বিদ্যুৎ গ্রহকের উপরে ফেলে থাকে। তাদের উপর দিয়ে কোন কথা বললেই ঐ গ্রহকের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তারা জনগনকে বিপাকে ফেলে থাকে। এছাড়াও পল্লী বিদ্যুতের লোকজনের অনিয়মের প্রতিবাদ করলে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ তাদের নিজস্ব ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিদ্যুতের গ্রহকদেরকে মামলা মোকদ্দামায় জড়িয়ে আর্থিক ক্ষতিসাধন করে থাকে। পল্লী বিদ্যুৎ পিডিপি থেকে বিদ্যুৎ ক্রয় করে সাধারণ জনগনের উপরে বেশি দামের বিক্রি করে অধিক মুনাফা অর্জন করে বৃটিশ আমলে নীল চাষের ন্যায় পল্লী বিদ্যুৎ শুরু করেছে। কিছুদিন পূর্বে চাপাই নবাবগঞ্জ কানসার্ট এর ঘটনায় দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর গ্রাহকদেরকে মিটার ভাড়া বন্ধ করে দিয়ে ছিল। কিন্তু কিছুদিন পরই পুনরায় এ এলাকার পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকদের মাঝে মিটার ভাড়া চালু করে দিয়েছে। বর্তমানে পল্লী বিদ্যুৎতের এহেন কার্যক্রম ও বিদ্যুৎ বিভ্রান্তে জনগন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এব্যাপারে এলাকার সচেতন মহল সরকারের উধ্বর্তন কতৃপক্ষের একান্ত সু-দৃষ্টি কামনা করছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য