ফুলবাড়ীতে বাইপাস সড়কফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের দক্ষিণ অঞ্চলের ফুলবাড়ী উপজেলায় বাইপাস সড়ক নির্মাণ না হওযায় র্দূঘনা বাড়ছে। স্বাধীনতার পর ফুলবাড়ীতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি না থাকায় এবং জনসংখ্যা কম থাকায় দূর্ঘনা কম ছিল। কিন্তু ফুলবাড়ী এখন দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থান হওযায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বেড়েছে। গোবিন্দগঞ্জ থেকে দিনাজপুর পর্যন্ত সড়ক যোগযোগ ব্যবস্থা ভালো হওযায় যানবাহন বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে যানবাহন ও জনগণ। যোগাযোগের ক্ষেত্রে ফুলবাড়ীর তেমন কোন উন্নতি হয়নি। পার্বতীপুর থেকে ফুলবাড়ী, মিঠাপুকুর মধ্যপাড়া হয়ে ফুলবাড়ী, হাকিমপুর বিরামপুর হয়ে ফুলবাড়ী যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হওযায় ফুলবাড়ী শহরের ভিতর দিয়ে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল করায় শহরে ও তার বাহিরে সড়ক দূর্ঘনা বাড়ছে। ফলে ফুলবাড়ীতে বাইপাস সড়ক নির্মাণ হওযায় জরুরি হয়ে পড়েছে। গত ২০ বছর আগে ফকিরপাড়া হয়ে শোয়েব এমপির বাড়ীর সামনে দিয়ে শোসান ঘাটির উপর দিয়ে লক্ষীপুর নামক স্থানে মহাসড়কের সাথে বাইপাস সড়কটি নির্মাণ করে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হওয়া কথা ছিল। কিন্তু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে বাইপাস সড়কটি আর নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি। দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে বাইপাস সড়কটি নির্মাণের জন্য ভূমি অধিক গ্রহণ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রহস্য জনক কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। ফুলবাড়ী যমুনা ব্রিজের উপর নির্মিত ব্রিজটির উপর চরম যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। শহরে অনেক সময় ঘন্টার পর ঘন্টা যানজট লেগে থাকে। ফলে প্রতি বছর শহরে বিভিন্ন যানবাহন চলাচলে র্দূঘনা বাড়ছে। এতে স্কুল, কলেজের ছাত্র, দিনমজুর কৃষক, স্কুল কলেজের শিক্ষক, পথচারীদের প্রাণ হানি ঘটছে। বাইপাস সড়কটি নির্মাণ করা হলে সড়ক দূর্ঘনা কমে যাবে। পাশাপাশি শহরটির এলাকা বেড়ে যাবে। কিন্তু স্বাধীনাতার ৪২ বছরেও ফুলবাড়ী উপজেলার তেমন কোন উন্নতি হয়নি। ফলে এলাকার মানুষ এখনো শহরে কোন সুযোগ সুবিধা পাছে না। শহরের যেখানে সেখানে যানবাহনের কাউন্টার গড়ে উঠায় সেখানে রহরহ গাড়ী থামিয়ে যাত্রীদেরকে তোলা হচ্ছে। দেশের উত্তর অঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ ফুলবাড়ী এলাকাটি জাতীয় ভাবে চিহ্নত হলোও এই এলাকার মানুষের ভাগ্যর কোন উন্নয়ন হয়নি। দিন যত যাচ্ছে তত শহরে যানজট বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী এলাকার সচেতন মহল বাইপাস সড়কটি নির্মাণের জন্য যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য