Photoপার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ গতকাল সোমবার গভীর রাত ১ঘটিকার সময় পার্বতীপুর শহরের নতুনবাজার এলাকায় রজনী গন্ধা আবাসিক হোটেলে গলাকাটা জীবিত আবস্থায় এক যুবককে পার্বতীপুর মডেল থানার পুলিশ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়ার পর মৃত্যু হয়।
জানা যায় মৃত্যু যুবক হান্না ওরফে হান্নান মন্ডল (৩৫) ভূয়া মোঃ আলি নামে পরিচয় দিয়ে রজনী গন্ধা হোটেলের ২০ নং কক্ষে ৬৩ দিন সিট ভাড়া করে অবস্থান করছিল। সে হৃদয় বলপেন কোম্পানী মার্কেটিং এর জন্য ব্যবসায়িক ভাবে ভূয়া ঠিকানায় ঐ আবাসিক হোটেলে ছিল। ঘটনার ২ দিন পূর্বে কুষ্টিয়া থেকে ৫-৬ জন লোক পার্বতীপুর মডেল থানায় এসে হান্নান মন্ডলের ছবি দেখিয়ে তাকে গ্রেফতারের জন্য সহযোগিতা কামনা করেন। এর পরই গলা কাটা আবস্থায় রজনী গন্ধা আবাসিক হোটেল থেকে পার্বতীপুর থানা পুলিশ উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালের চিকিৎসার পর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর ৪টার দিকে মারা যায়।
থানা সূত্রে জানা যায়, যুবকের গলাকাটা রহস্যজনক। সে নিজেই গলা কেটেছে না অন্য কেহ গলা কেটেছে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছেনা। তার রুমে একটি নতুন বেলেট ও একটি কাগজ কাটা বেলেট পাওয়া গেছে। আরও জানা যায় মৃত্যু ব্যক্তির কাছে চাকরি দেওয়ার নামে বেশে কয়েকজন লোক প্রায় এক কোটি টাকা পাবে।
এ ব্যাপারে হোটেলের ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম সহ কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর থানার ৫ জনকে আটক করে থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তারা হলেন আসিকুর রহমান (৩৬) সাং কন্দপাতিয়া, হাবিবুর রহমার হাবিব (২৮) সাং বটতইল, সামিম রেজা বুলবুল (২৬) সাং আবুরি, রাজিউর রহমান (৩২) সাং আওরা পাড়া ও কামরুজ্জামান (৩৫) সাং কন্দপাতিয়া। তবে আটক ব্যাক্তিরা মৃত্যু হান্নান মন্ডলের কাছে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা পাবে বলে পুলিশের কাছে জানান।
মৃত্যু বাক্তির সঠিক ঠিকানা পাওয়া গেছে। তার পিতার নামঃ মৃত্যু শামসুল মন্ডল সাং বাকসন পানাতোয়া থানাঃ শিবগঞ্জ জেলাঃ বগুড়া, এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য