Vutta Photo ভুট্টানীলফামারীঃ জেলার ডোমার উপজেলার হাট ও বাজারগুলোতে ধানের চেয়ে ভুট্রার দাম ও চাহিদা দু’ই বেশী। চলতি মৌসুমে কৃষকরা ধান চাষাবাদের চেয়ে ভুট্রা আবাদ করে বেশী লাভবান হয়েছে বলে কৃষকরা জানান। বিঘা প্রতি জমিতে ইরি ধান ৬/৭ হাজার টাকা খরচ করে সর্বোচ্চ ২০/২১ মন ধান হয়েছে। এমন কিছু ইউনিয়নের বেশ কিছু জায়গায় আবহাওয়ার প্রতিকুলতার কারণে গোরা পচন রোগ ধরে চিটা পড়ে প্রতি বিঘা জমিতে ৬/৭ মন ধান উৎপাদন হয়েছে বলে জানা যায়। যাহা বিক্রয়ে খরচের অর্ধেক টাকাও উঠানো স¤ভব হয় না। এবং এই ধান বাজারে বিক্রয় করতে গিয়ে বিক্রি হচ্ছে। ৪/৫ শত টাকা। অপর দিকে প্রতি বিঘা জমিতে ৩/৪ হাজার টাকা খরচ করে বিঘা প্রতি জমিতে ভুট্টা উৎপাদন হয়েছে ২৫/৩০ মন এবং কৃষকরা প্রতি মণ ভূট্রা বাজারে বিক্রি করে মূল্য পাচ্ছে ৫/৬ শত টাকা। হাট ও বাজার ঘুরে দেখা গেছে ধানের চেয়ে ভুট্টার চাহিদাও বেশী। ইরি ধান আবাদে পোকামাকড়ের ভয় থাকে কিন্তু কৃষকদের ভাষ্যমতে ভুট্টা আবাদে এই ভয় খুবই কম। কৃষকরা জনান আবহাওয়া অনুকুলে থাকা, সেচ ও সার সুবিধা সঠিক পর্যায়ে থাকার ফলে ধারনার চেয়ে অনেক বেশী ভুট্টার ফলন হয়েছে। চলতি মৌসুমে এলাকা ঘুরে দেখা গেছে এবং কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে ইরি করে সর্বশান্ত হয়েছে অনেক কৃষক।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য