NEWS PARBATIPUR PIC  20.05.2015পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ গত ৫ জানুয়ারী থেকে বন্ধ হওয়া পার্বতীপুরের দু’টি রেল রুটের দু’টি ডেম্যু ট্রেনের ১২টি ৩২ ইঞ্চি করে এলসিডি মনিটর (টেলিভিশন) (এরোস কোম্পানীর বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য ব্যবহৃত) রেল পুলিশ প্রশাসনের সহযোগীতায় খুলে নিয়ে গেছে। আর বেতন-ভাতা না পাওয়ায় গত ৪ মাস ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন ডেম্যু ট্রেনের দায়িত্বরত কোম্পানীর নিয়োগ কর্তৃক পাহারাদার লিটন (২৫)। আর পাওনাদারের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে লিটন।
জানা গেছে, এরোস কোম্পানীর সিনিয়র ম্যানেজার লিয়াকত হোসেন ও শাকিল আহম্মেদ পার্বতীপুর লোকো সেডে অবস্থানরত দু’টি ডেম্যু ট্রেনের ভেতরে থাকা ১২টি এলসিডি মনিটর খুলে নেওয়ার সময় তাদের নিয়োগকৃত পাহারাদার লিটন গত ৪ মাস ধরে বেতন না পাওয়ায় বাঁধা প্রদান করে। লিটন কোম্পানীর সিনিয়র ম্যানেজারের কাছে বিনয়ের সহিত তার ন্যায্য বেতন দেওয়ার জন্য অনুরোধ করে। আপাতত বেতন দিতে ম্যানেজার অপারগতা প্রকাশ করলে লিটন তার ২/১জন আত্মীয় ও এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে কোম্পানীর এলসিডি মনিটরগুলো নিতে বাধাঁ প্রদান করে। উপায় না পেয়ে পরে কোম্পানীর সিনিয়র ম্যানেজার লিয়াকত হোসেন পাহারাদার কর্তৃক মালামাল আটকের বিষয়টি পার্বতীপুর রেল পুলিশকে জানায়। পরে পার্বতীপুর রেল থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম লুৎফর রহমান পুলিশ পাহারায় সেগুলো লোকো সেড থেকে নিয়ে যায়।
এব্যাপারে পার্বতীপুর লোকো সেডের লোকো ফোরম্যান আব্দুল মতিন আজ বুধবার দুপুরে মোবাইল ফোনে ডেম্যু ট্রেনের ১২টি এলসিডি মনিটর সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রেলওয়ের সাথে চুক্তিবদ্ধ এরোস কোম্পানীর মনিটরগুলো খুলে নিয়ে গেছে। কোম্পানীর উদ্ধৃতি দিয়ে ফোরম্যান জানান, গত ৪ মাস থেকে ডেম্যু ট্রেন চলাচল না করায় মনিটরগুলো সার্ভিসিংয়ের জন্য গত মঙ্গলবার এরোস কোম্পানীর সিনিয়র ম্যানেজার লিয়াকত হোসেন ও শাকিল আহম্মেদ কাগজ কলমে লিখিতভাবে খুলে নিয়ে গেছে। মেরামত শেষে পুনরায় পুনঃস্থাপন করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এরোস কোম্পানী কর্তৃক নিয়োগকৃত পাহারাদার লিটনের বেতন পরিশোধ না করলে এমন প্রশ্ন করা হলে পার্বতীপুর রেল থানার অফিসার ইনচার্জ এ,কে,এম, লুৎফর রহমান বলেন প্রয়োজনে তিনি লেবার কোর্টে মামলা করবে। অপরদিকে, এরোস কোম্পানীর মালিক মন্ত্রীর আত্মীয়ের পরিচয়ের বিষয়টি পার্বতীপুর রেল থানার অফিসার ইনচার্জ এ,কে,এম, লুৎফর রহমান ও পার্বতীপুর লোকো সেডের ফোরম্যান আব্দুল মতিন নিশ্চিত করেছেন। উক্ত কোম্পানী কর্তৃক নিয়াগকৃত পাহারাদার লিটনের বাড়ী সেতাবগঞ্জ উপজেলার মালিপাড়া গ্রামে। তার পিতার নাম মৃত বারেক হোসেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য