11_egyptআন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিশরের নিরাপত্তা বাহিনী বন্দিদের ওপর হরহামেশাই চরম যৌন সহিংসতা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে এক মানবাধিকার গোষ্ঠী। আন্তর্জাতিক ফেডারেশন ফর হিউমেন রাইটস নামক গোষ্ঠীটি সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মিশরে গণবিক্ষেভে অংশ নেয়ার দায়ে আটককৃত নারী, পুরুষ এমনকি শিশুদের ওপরও ধর্ষণ, গণধর্ষণসহ নানা ধরনের যৌন নির্যাতন চালানো হচ্ছে।

তবে এর ওপর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তারা জানিয়েছে, পুরো প্রতিবেদন পর্যবেক্ষণ করার পরই তারা মন্তব্য করবে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালের জুলাই মাসে মিশরের সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করার পরই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বন্দিদের ওপর যৌন নির্যাতন চালানো হচ্ছে। তাদের এই কর্মকান্ডের রাজনীতিক উদ্দেশ্য হচ্ছে, বিরোধীদের সম্পূর্ণভাবে নিষ্ক্রিয় করে দেয়া। পুলিশ, গোয়েন্দা কর্মকর্তা এবং সেনা সদস্যরা সম্মিলিতভাবেই বন্দিদের ওপর এ ধরনের নির্যাতন চালাচ্ছে। যাঁরা এ নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন তাদের মধ্যে বিক্ষোভে অংশ নেয়া ছাত্র, মানবাধিকার কর্মী, সমকামী এবং শিশুরাও রয়েছে।

মানবাধিকার গোষ্ঠীর কর্মকর্তারা বলছেন, এই নির্যাতনের নির্দেশ কোত্থেকে আসছে সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত নন। তবে এর পাশবিকতার মাত্রা দেখে মনে হচ্ছে এটি এক ধরনের রাজনীতিক কৌশল।

তারা আরো দাবি করেন, যেসব ভুক্তভোগিরা এসব নির্যাতনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে গিয়েছেন তারাও বিচারিক পদ্ধতির কারণে ধারাবাহিকভাবে বাধার সম্মুখীন হয়েছেন। এমনকি কারাপ্রহরী এবং পুলিশ কর্মকর্তারাও তাদের নানা ধরনের হুমকি দিয়েছেন।

মিশরে যৌন নিপীড়ন কোনো নতুন ঘটনা নয়। তবে হুসনি মোবারকের পদত্যাগের পর এই হার নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য