PHOTO-03গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ অজ্ঞান পাটির খপ্পরে পড়ে এখন জীবন বিপন্ন গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডাবাড়ি ইউনিয়নের জিগাবাড়ি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তারের। তাকে মঙ্গলবার অচেতন অবস্থায় লালমনিরহাট থেকে আগত পদ্মরাগ ট্রেনের কামড়া থেকে গাইবান্ধা রেলস্টেশন উদ্ধার করে তাকে গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা সংকটাপন্ন হলেও তাকে দেখার কেউ নেই। সে ওই গ্রামের মৃত কিনু শেখের ছেলে।
জানা গেছে, গাইবান্ধা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র সুন্দরগঞ্জ উপজেরার মন্ডলেরহাট গ্রামের আবুল কালাম আজাদ, একই উপজেলার সমস গ্রামের বিপুল মিয়া ও গোবিন্দগঞ্জের চাঁদপাড়া গ্রামের তুহিন অচেতন অবস্থায় পদ্মরাগ এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি কামড়া থেকে উদ্ধার করে। তারা জেলা ও ফুলছড়ি উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও এব্যাপারে কোন সহায়তা না পেয়ে স্বপ্রণোদিত হয়ে অচেতন ওই মুক্তিযোদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। এখন সে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বিষাক্ত কোন দ্রব্য খাওয়ানোর ফলেই ওই মুক্তিযোদ্ধা অজ্ঞান হয়ে পড়েন এবং তার অবস্থা এখন সংকটাপন্ন।
এদিকে ওই মুক্তিযোদ্ধার নিকট থেকে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতার একটি বই পাওয়া গেছে। যা থেকে ছবি ও নাম ঠিকানা জানা গেছে। তার মুক্তিযোদ্ধার সম্মানী ভাতার বহি নং ২২২ এবং রেজিঃ নং- ৩৪০৭২৯৯৯।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য