ঠাকুরগাঁওয়ে গমক্রয়ে দুর্নীতি বন্ধের দাবীতে বিক্ষোভঠাকুরগাঁও সংবাদাতাঃ “কৃষক বাচাও, কৃষি বাচাও, দেশ বাচাও” স্লে­াগান নিয়ে পীরগঞ্জ খাদ্যগুদামে চলতি গম সংগ্রহ মৌসুমের গম ক্রয়ে অনিয়ম দুর্নীতি ও সিন্ডিকেট বন্ধ এবং মৌসুমের শুরুতে ইরি-বোরো ধানের ন্যয্যমূল্য নিশ্চিত করা সহ ৪ দফা দাবীতে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি পীরগঞ্জ উপজেলা শাখা বিক্ষোভ মিছিল করেছে।পরে  উপজেলা কৃষি অফিসারের কাছে স্বারকলিপি পেশ করেছে।
সরকারী সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৪ হাজার ৩শ’ ৭২ মে.টন গম প্রতিকেজি ২৮ টাকা দরে সরকারি খাদ্য গুদামে সংগ্রহ অভিযান শুরু হয় গত  ৪ মে। সংগ্রহ অভিযানের শুরুতে স্থানীয় ব্যবসায়ী, বিভিন্ন সংগঠন ও সরকারি দলের নেতারা নামে বেনামে ট্রাকে ট্রাকে খাদ্যগুদামে গম সরবরাহ দিতে থাকেন। ঠিক এভাবেই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে গম সংগ্রহ করতে থাকেন গুদাম কতৃপক্ষ। উৎপাদক কৃষক গুদামের ধারে কাছেও যেতে পারছেন না। তাদের কাছে কৃষিকার্ড থাকলেও তাদের নামের তালিকা নেই গুদাম কর্মকর্তার কাছে। যার প্রেক্ষিতে কৃষকরা গুদামে গম দিতে পারছেনা মর্মে অভিযোগ করে বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টির গণসংগঠন, বাংলাদেশ কৃষক সমিতি, পীরগঞ্জ উপজেলা শাখা বিক্ষোভ মিছিল ও স্বারকলিপি পেশের কর্মসূচি ঘোষণা করে ৭ মে শহরে মাইকিং শুরু করে। প্রায় ঘন্টাব্যাপি মাইক প্রচার চলার পর স্থানীয় পৌরমেয়রের নির্দেশে কৃষক সমিতির প্রচার মাইকটি আটক করা হয়। উভয় পক্ষের আলোচনার পর মাইকটি রাতে ছেড়ে দেওয়া হয়। এদিকে ৮ মে সমগ্র শহরে খাদ্যগুদাম কর্মকর্তাদের হুশিয়ারী দিয়ে ব্যাপক পোষ্টারিং করা হয়। পোষ্টারে স্থানীয় সংগঠন ‘কৃষক পরিবার’ এর ব্যানারে “সরাসরি সরকারি খাদ্যগুদামে কৃষকের কাছ থেকে গম ক্রয় করতে হবে, কৃষকের গম নিয়ে তালবাহানা বন্ধ কর করতে হবে, কৃষকের ফসলের ন্যয্যমূল্য দিতে হবে, ফসলের লাভজনক দাম  চাই, অবিলম্বে সরকারি ক্রয় কেন্দ্র চালু কর উল্লেখ করা হয়।
এ বিষয়ে সংগ্রহ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার কৃষক সমিতি ও কৃষক পরিবারের নেতা-কর্মীদের ১০ মে তার অফিসে আলোচনার জন্য ডেকে নিয়ে বিষয়টির সমাধানের চেষ্টা করেন । কিন্তু সংগঠনের নেতারা তাদের দাবীতে অনঢ় থাকায় বৈঠকটি ব্যর্থ হয়। শহরে আবারো বের করা হয় মাইকিং। ঘোষিত কর্মসূচি মোতাবেক কৃষক সমিতি সোমবার দুপুরে শহরের ডাকবাংলো থেকে লাল পতাকা ও ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে শহর প্রদক্ষিন শেষে পূর্ব চৌরাস্তায় আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
এখানে বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ.সভাপতি আলতাফ হোসেন, ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন, রানীশংকৈল উপজেলা নেতা আবদুল মান্নান, পীরগঞ্জ উপজেলা সভাপতি অধীর রায়, সম্পাদক মর্তুজা আলম, বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি, পীরগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু সায়েম প্রমুখ। পরে বিক্ষোভ মিছিল সহ উপজেলা পরিষদে গিয়ে মৌসুমের শুরুতেই অর্থাৎ মার্চ মাসের শুরুতেই গম ক্রয় করতে হবে, গম ক্রয়ে অনিয়ম, দুর্নীতি ও সিন্ডিকেট বন্ধ করা, ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে মৌসুমের শুরুতেই সরকারি ক্রয় কেন্দ্র চালু করে দ্রুত ধান ক্রয় কর ,পীরগঞ্জ উপজেলার সাব এলএসডি গোডাউনগুলো দ্রুত চালু করতে হবে  দাবি সম্বলিত স্বারকলিপি খাদ্য মন্ত্রনালয়ের সচিব বরাবরে লিখিত স্মারকলিপি পেশ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুপস্থিতিতে উপজেলা কৃষি অফিসারের কাছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য