06-salman-khanবিনোদন:সম্প্রতি আদালতে জবানবন্দিতে নিজের পরিচয় দিতে গিয়ে ভারতীয় সালমান খান বলেছেন, তিনি একই সঙ্গে হিন্দু এবং মুসলমান।
গত বুধবার জোধপুরে কৃষ্ণ হরিণ হত্যা মামলার শুনানিতে উপস্থিত হলে সালমানকে তার পরিচয় নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। উত্তরে প্রথমে সালমান বলেন, তিনি একজন ভারতীয়। পরে তাকে তার ধর্ম নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আমি একই সঙ্গে হিন্দু এবং মুসলমান।”
জোধপুরের আদালতে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অনুপমা বিজলানি সালমানের পরিচয় নথিবদ্ধ করার সময় এই প্রশ্ন করেন। আদালত কক্ষে উপস্থিত অনেকেই তখন সালমানকে মুসলমান হিসেবে পরিচয় দেওয়ার পরামর্শ দিলেও নিজের বক্তব্যে অটল থাকেন তিনি।
এই পরিচয়ের ব্যাখ্যায় সালমান বলেন, “আমি হিন্দু এবং মুসলমান। আমার বাবা (সেলিম খান) একজন মুসলিম, আমার মা (সুশীলা চারাক) একজন হিন্দু।”
জোধপুরে কৃষ্ণ হরিণ হত্যার পাশাপাশি বন আইনের অধীনে সালমানের বিরুদ্ধে আনা হয়েছে নতুন অভিযোগ। এই অভিযোগে বলা হয়েছে অনুমোদনবিহীন অস্ত্র বহন করায় সালমানের অস্ত্র ব্যবহার অবৈধ ছিল। এদিন আদালতে দাঁড়িয়ে সালমান দাবি করেন লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি এর নবায়ন করিয়েছিলেন। আর তাই তার বহন করা অস্ত্র অবৈধ ছিল না।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য