ইলিশসৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ সৈয়দপুরে ইলিশের কেজি ১৮শ’ টাকা। সৈয়দপুরের বাজারে স্মরণকালের উচ্চমূল্য এটি। বৈশাখের অন্যতম উপকরণ এই মাছের চাহিদা বৃদ্ধির ফলে দিশেহারা হয়ে পড়েছে ইলিশ ক্রেতারা। বাংলা নববর্ষ পালনের উপসর্গ হিসেবে এই ইলিশ-পান্তা খাওয়ার রেওয়াজ প্রচলিত হওয়ায় দিন দিন এই সময় ইলিশ ক্রয়ের ঝোক পড়ে যায় বাঙ্গালীর ঘরে ঘরে। সৈয়দপুর উর্দুভাষী অধ্যুষিত শহর হলেও নববর্ষ পালনে বাঙ্গালী-উর্দূভাষী উৎসব আনন্দে মেতে উঠে।
মঙ্গলবার পহেলা বৈশাখ। তাই বাজারে ইলিশ কেনার হিড়িক পড়েছে। ক্রেতার চেয়ে ইলিশের সংখ্যা কম হওয়ার সুযোগে বিক্রেতারা দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ পর্যন্ত বেশি দাম হাকছে। বাধ্য হয়ে ক্রেতারা দামাদামি করে শেষ পর্যন্ত দ্বিগুন মুল্যেই ইলিশ কিনছে। তারপরও যারা সাধ আর সাধ্যের সমন্বয় করতে পারছেন না তারা ইলিশের পরিবর্তে দেশীয় অন্যান্য মাছ কিনে বাঙ্গালীয়ানা ট্রাডেশন সম্পন্ন করছেন। যাকে বলে দইয়ের সাধ ঘোলে মিটানো।
সৈয়দপুর শহরের প্রধান দুইটি কাচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, সৈয়দপুর আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষিকা সুলতানা নাসরিন নুরী ইলিশ মাছ ক্রয় করছেন। এসময় তিনি জানান, ইলিশের দাম গত বছরের তুলনায় অত্যধিক। অনেক ক্ষেত্রে তিনগুন পর্যন্ত দাড়িয়েছে। তবুও চাহিদা মত না হলেও সাধ্য অনুযায়ী ২/১ কেজি কিনতে সচেষ্ট। সে কারণে কোন রকমে ১ কেজি ইলিশ নিলাম। আমার মত আরও অনেকে এককভাবে ১টি মাছ কিনতে না পেরে কয়েকজন মিলে গোটা মাছ কিনে কেটে ভাগ করে নিয়েছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য