একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে জামায়াতের কিলিং স্কোয়াড আলবদর বাহিনীর বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা কমান্ডার কামারুজ্জামানের মৃত্যুদন্ডের রায় বহাল থাকা নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন যে অযৌক্তিক বিবৃতি দিয়েছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান উদীয়মান প্রজন্ম ও বাঙালি জাতির স্বাধীনতাকামী মানুষের পক্ষে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম-বোয়াফ।

সংগঠনের সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, ‘কুখ্যাত মানবতাবিরোধী অপরাধী কামারুজ্জামানের মৃত্যুদন্ডের রায় বহাল থাকা নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের মুখপাত্র রাভিনা সামদাসানি জাতিসংঘের পক্ষ থকে যে বিবৃতিতে দিয়েছে তা অসতর্কতাবশত, মিথ্যাচার ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’।

তিনি আরও বলেন, ‘এই সব স্পর্শকাতর বিষয়ে বক্তব্য বিবৃতি দেওয়ার আগে আরও সতর্ক হওয়া উচিৎ কারণ এই ধরনের বক্তব্য বিবৃতির পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষের মধ্যে যেমন নেতিবাচক ভাব তৈরি করে আবার অন্য দিকে বিবৃতিদাতা ও আন্তর্জাতিক সংগঠনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্নের উদয় হয়’।

কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, ‘আইসিটি আন্তর্জাতিক সকল মানদন্ড বজায় রেখে অত্যান্ত স্বচ্ছতার সাথে সকল মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচার কাজ যতই সামনের দিকে অগ্রসর করছে কতিপয় ব্যক্তি ও মহল এই বিচার কাজকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টায় নানান সময় নানান ধরনের বক্তব্য গোটা জাতি ও বিশ্বের বক্তব্য বিৃবতি হতে পারে না। এই ধরনের অপব্যাখা, ষড়যন্ত্রমুলক বিবৃতির প্রতি আন্তর্জাতিক সংগঠন সহ সরকারকেও সতর্ক হওয়া অতি জরুরী’।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের মুখপাত্র রাভিনা সামদাসানি তার বিবৃতি দেওয়ার আগে ময়মনসিংহ’র শেরপুরবাসির সাথে বসবাস করে অভিজ্ঞতা অর্জন করার প্রয়োজন ছিল। বিশ্ব মানবতাকে সুসংগঠিত করার জন্য, অপরাধমুক্ত বিশ্ব তৈরি করার লক্ষে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন এই সব কুখ্যাত মানবতাবিরোধী অপরাধীদের পক্ষে বিবৃতি না দিয়ে অপরাধ প্রবনতা রোধ করার জন্য আইসিটি’কে সহায়তা প্রদান করবে বলে আশা করেন কবীর চৌধুরী তন্ময়।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য