SAM_1472 copyস্টাফ রিপোর্টার ॥ দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী বলেছেন, অটিজম হল মানসিক উন্নতির ক্ষেত্রে একটি জীবনব্যাপী প্রতিবন্ধকতা যার ফলে সামাজিক কর্মকান্ডে এবং কথা বলার ক্ষেত্রে উন্নতি বাধাগ্রস্থ। অটিজম এক প্রকার বৃহৎ সামাজিক ও মানসিক প্রতিবন্ধকতা। এটি একটি জটিল অনাকাঙ্খিত আচারণগত অসামঞ্জস্যতাপূর্ণ রোগ। অটিজম রোগীদের চিকিৎসার চেয়ে সেবা বা ভালোবাসাই এদের বেশী প্রয়োজন। মনে রাখবেন সঠিক সেবা ও পরিচর্যা করার মাধ্যমে একটি অটিজম শিশুর পিতা মাতাই হচ্ছে বড় বন্ধু ও প্রধান প্রশিক্ষক।
“অটিজম সচেতনতা থেকে সক্রিয়তা একিভূত সমাজ গঠনে শুভ বার্তা”-এবারো প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে জেলা প্রশাসন ও সামজ সেবা কার্যালয় দিনাজপুর আয়োজিত এবং স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর সহযোগিতায় গতকাল ২ এপ্রিল অষ্টম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উদযাপন উপরক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন। র‌্যালীটির নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী ও বিশেষ অতিথি পুলিশ সুপার মোঃ রুহুল আমিন। র‌্যালী শেষে শিশু একাডেমী মিলনায়তনে সামজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক স্টিফেন মুর্মু’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব রাখেন সিভল সার্জন ডাঃ সুলতান মোঃ সামসুজ্জামান, বাংলাদেশ জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদ-ঢাকা’র সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ ছফর আলী, জেলা সিনিয়র তথ্য অফিসার আবুল কালাম মোহাম্মদ সামসুদ্দিন, শিশু একাডেমীর শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজ সেবা অফিসার (রেজী) আবু বক্কর সিদ্দিক। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইয়াকুব আলী, সিডিসির প্রকল্প সমন্বয়কারী শৈলেন চন্দ্র রায়, প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস, প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের শামীম রহমান, প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় ও পূর্ণবাসন সংস্থার সাধারণ সম্পদাক বিলকিস আরা ফয়েজ, সিডিএর পক্ষে অনামিকা পান্ডে ও অটিষ্টিক শিশুর অভিভাবক প্রতিমা মন্ডল। স্বার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন গেলাম রাব্বানী।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য