S3060005বেলাল উদ্দিনঃ দিনাজপুর পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ায় পৌরবাসীরা পড়েছেন ভোগান্তিতে। কিছুদিন পরেই শুরু হবে বর্ষার মৌসুম তবুও ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কারের কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করে নি পৌর কর্তৃপক্ষ। তাই পৌরবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে রাস্তা পথগুলোতে জলাবদ্ধতা আতংক। শহরের অনেক স্থানে ড্রেন নিয়মিত পরিস্কার করা হয় আর লাখ লাখ টাকা খরচ অপ্রয়োজনীয় স্থানে নির্মিত করা হচ্ছে ড্রেন। যা জলাবদ্ধতা নিরসনের কোন কাজে আসেনি। কতগুলো ড্রেন রয়েছে যা ভরাট হয়ে গেলেও গত ২০ বছরে সংস্কারের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। শহরের ক্ষেত্রীপাড়ায় উকিতল বাড়ীর আশেপাশে, রামনগর বাইতুল আকসা জামে মসজিদের আশেপাশেসহ শহরের S3090003বিভিন্নস্থানে ৫০ বছর পূর্বের ড্রেন রয়েছে। যার অবকাঠামো রয়েছে অটুট, শুধু ভরাট মাঠি সরিয়ে ফেললেই ড্রেনগুলো সচল রাখা সম্ভব হবে। পৌরকর্তৃপক্ষ তা না করে নতুন ড্রেন তৈরী করতে ব্যস্থ। পাটুয়াপাড়া ঈদগাঁ মাঠের পশ্চিমে, রামনগর লিংকরোডটিতে ড্রেন নির্মাণ করা হলেও রাস্তাটি নিয়ে জলাবদ্ধতার আশঙ্কা এখনও রয়ে গেছে এলাকাবাসীর মধ্যে। অন্যদিকে জেলরোডের পিএমএন ক্যাবল অফিসের সামনে একটু বৃষ্টিতেই রাস্তায় হাটুজল জমে যায়। আবার বন্যার কবল থেকে শহরকে বাঁচাতে এ ডি বি এর অর্থায়নে নির্মিত বৃহদকায় ড্রেনগুলো এখন ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে এলাকার মানুষ তাদের ময়লাসহ সব ধরনের বর্জ্য পদার্থ ড্রেনগুলোতে ফেলে দেয় ফলে ড্রেনগুলো ভরাট হয়ে গেছে। পৌরকর্তৃপক্ষ যেভাবে নতুন ড্রেন তৈরীতে আগ্রহ প্রকাশ করছে তেমনিভাবে পুরাতন ড্রেনগুলো সংস্কারের আগ্রহ দেখাচ্ছে না। অন্যদিকে পৌরসভার কিছু অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীদের সহায়তায় ড্রেন দখল করে তার উপরে তৈরী হচ্ছে দোকানপাট। ফলে বন্ধ হয়ে গেছে ড্রেন পরিস্কার করার সব ধরনের কার্যক্রম।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য