DSC00183 copyসাহেব, দিনাজপুর ॥ বিএডিসির নিয়োগ ও পদায়ন নীতিমালায় সহকারী পরিচালক পদে কৃষিবিদদের নিয়োগের পদ সংকোচন করার প্রতিবাদে বুধবার দিনাজপুর-ঢাকা মহাসড়কে মানববন্ধন পালন করেছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থীরা।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিএডিসির প্রবিধানমালা ১৯৯০ অনুসারে বিদ্যমান কোটা ব্যবস্থায় বিগত ২৫ বছর ধরে এ পর্যন্ত কৃষি পুলে সহকারী পরিচালক পদে  সরাসরি নিয়োগে ৭৫ ভাগ কৃষিতে ন্যূনতম স্নাতক এবং সংস্থায় কর্মরত উপ-সহকারী পরিচালকগণ (কৃষিতে ডিপ্লোমাধারী) এর পদোন্নতির মাধ্যমে ২৫ ভাগ পদ পূরণ হয়ে আসছে। কিন্তু বিএডিসি বিগত ২০১২ সালে সহকারী পরিচালক পদে DSC00180 copyপ্রবিধানমালা ১৯৯০ অনুসারে অশুদ্ধ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। এই প্রেক্ষিতে বিএডিসিতে কর্মরত উপ-সহকারী পরিচালকগণ সংস্থায় বিদ্যমান ২৫ ভাগ কোটার পরিবর্তে ৭৫ ভাগ কোটা দাবি করছে। বাংলাদেশ এমনকি উপমহাদেশে প্রথম শ্রেণীর পদের ক্ষেত্রে কৃষি ডিপ্লোমাধারীদের ৭৫ ভাগ কোটা পূরণের বিধান চালু নেই। বিগত তিন বছর বিএডিসিতে সহকারী পরিচালক পদে নিয়োগ বন্ধ থাকায় সারাদেশে কৃষি গ্রাজুয়েটদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে।
দেশের কৃষিশিক্ষা, কৃষি এবং কৃষি অর্থনীতিকে ধ্বংসের  হাত থেকে রক্ষাকল্পে বিএডিসির এন্ট্রিপদ সহকারী  পরিচালক নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রণীত অন্যায্য বিধিটি অবিলম্বে বাতিল করার আহবান জানান বক্তারা।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কৃষি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. আনিস খান, কৃষি রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার, কৃষিবিদ প্রফেসর ড. সাইফুল হুদা, কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. সাদেকুর রহমান, বিএডিসির উপপরিচালক মোফাজ্জল হোসেন, সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো.ফারুক হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার কার্যকরী সদস্য নাহিদ আহমেদ নয়ন, তাজউদ্দিন আহমেদ হল শাখার সাধারন সম্পাদক শেখ সোহরাব আলী সজল, শেখ রাসেল সম্প্রসারন হলের সভাপতি পলাশ চন্দ্র রায়, সাধারন সম্পাদক রঞ্জন মিত্র রায়, শেখ রাসেল হলের সভাপতি রুহুল কুদ্দুস(জোহা), কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থী তন্ময় দত্ত, মো. মমিনুল ইসলাম মুনেম, মো. নাজমুল হোসেন প্রমূখ।
মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহন করেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য