arr2মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ বোদা পৌরশহরের জমাদারপাড়ায় দীপক কুমার লাহেরী(১৯) নামের এক কলেজ ছাত্রকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এক জনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত ৯ ঘটিকার সময় দীপক এর বন্ধুর ভাড়াটে লোকজনের ধারালো ছুরির আঘাতে গুরুতর জখম আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উপজেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঠাকুরগাও সদর হাসপাতালের রেফার্ড করে। সেখানে ভর্তি করার পরে রাতেই তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দীপক বোদা পৌরশহরের ঝিনুকনগরের কমলেশ কুমার লাহেরীর ছেলে। সে ঢাকার তেজগাঁও পলি টেকনিক্যাল কলেজের ৩য় বর্ষের ছাত্র। পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন আগে পরীক্ষা শেষে সে বাড়িতে আসে। ঘটনার দিন বুধবার সন্ধ্যায় সে বন্ধুরদের ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যায়। রাতেই মোটর সাইকেল নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে জমাদারপাড়া গ্রামের এক ফাকা মাঠেন নির্জন জায়গায় পৌছালে ২টি মোটর সাইকেল নিয়ে তার সহপাঠীসহ কয়েকজন যুবক পথ গরিরোধ করে দাড়ায়। হঠাৎ তারা দীপককে মারধর শুরু করে। এ সময় সে চিৎকার করলে তার গলা, বুক ও পেটে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে খুনিরা পালিয়ে যায়। হাসপাতালে নেয়ার পথে দীপক স্থানীয় লোকজনদের জানান, ঠাকুরগাঁও জেলার মুন্সিরহাট এলাকার তার এক বন্ধু সবুজ ও তার লোকজন তাকে হত্যা করার চেষ্টা করেছে। ঘটনার পরপরই পার্শ্ববর্তী এক বাশঁ বাগানে রক্তমাখা জামা কাপর বদলানের সময় রায়হান(২৫) নামের এক যুবককে স্থানীয়রা আটক করে বোদা থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ জানান, আটককৃত যুবকের বাড়ি রংপুর এলাকার নীলকণ্ঠ এলাকার এনামুল হকের ছেলে। বোদা থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ আবুল কালাম আজাদ ১ জনের আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান এ ব্যাপারে বোদা একটি মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।
[ads1]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য