7-Hong+Kongআন্তর্জাতিক ডেস্ক: হংকংয়ে চীনা কর্তৃত্ব-বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে পর ঘটনাস্থল থেকে ৩৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার চীনের সীমান্তবর্তী হংকংয়ের নতুন এলাকা য়ুয়েন লঙ’এ এ ঘটনা ঘটে।

বিক্ষোভকারীরা চীনা নাগরিকদের জন্য প্রবর্তিত “মাল্টিপল-এন্ট্রি পারমিট” বাতিলের দাবীতে ও “চীনা কমিউনিস্ট পার্টি নিপাত যাক” বলে স্লে­াগান দেয়।

বিক্ষোভকারীরা সীমান্তের ওপার থেকে আসা কথিত ‘সমান্তরাল বিক্রেতা’দের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে। এসব বিক্রেতারা হংকং থেকে পণ্য কিনে চীনা সীমান্ত এলাকায় চড়া দামে বিক্রি করে।

বিক্ষোভকারীরা য়ুয়েন লঙ’র প্রধান রাস্তা ময়লার বাক্স জড়ো করে বন্ধ করে দেয়। পুলিশ পেপার স্প্রে ব্যবহার করে বিক্ষোভকারীদের বাধা দেয়। এক নারী বিক্ষোভকারীকে পুলিশ জোর করে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা কালে তার নাক ফেটে রক্তপাত হয়।

আক্রমণ, আক্রমণাত্মক অস্ত্র বহন, আইন অমান্য ও মারামারি করায় ঘটনাস্থল থেকে ১৩ বছর থেকে শুরু করে ৭৪ বছর বয়সী ৩৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সোমবার সকালে পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন।

হংকংয়ের রাস্তাগুলো থেকে পুলিশ গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভাকারীদের সরিয়ে দেয়ার তিনমাস পর য়ুয়েন লঙে এ বিক্ষোভ হল। এবারের বিক্ষোভকারীরা হংকং জাতীয়তাবাদ ও চীনা কর্তৃত্ব থেকে বেরিয়ে স্বাধীন হওয়ার ডাক দেয়। লঙে’র ২৩ বছর বয়সী বাসিন্দা বিক্ষোভকারী কিং লি বলেন, “আমরা হাঁটতে পারি না, কারণ তাদের পণ্যগুলো রাস্তায় পাহাড়ের মতো স্তূপ করে রাখা থাকে। আমরা নীরবে এসব সহ্য করবো না।” ‘সমান্তরাল বিক্রেতাদের’ প্রতি ক্ষোভ জানিয়ে বলেছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য