chirirbandr badsha photo 27-02-2015দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুর চিরিরবন্দরে পুলিশের গুলিতে ইউনিয়ন বিএনপির ওয়ার্ড সভাপতির পুত্রের মৃত্যু ও পুলিশ সহ ৬ জন আহত হয়েছে। এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার বিকাল সাড়ে তিনটায় চিরিরবন্দর থানার সাদা পোশাকধারী ৫ জন পুলিশ ও একজন চৌকিদার উপজেলার ১০ নং পূনট্রি ইউনিয়নের তুলশিপুর তালপাড়া গ্রামের বিএনপির ২ নং ওয়ার্ড সভাপতি হবিবর রহমানের বাড়িতে ঢুকে তাকে আটকের চেষ্টা করে। এ সময় তার ২ পুত্র, স্ত্রী ও মায়ের সাথে ধস্তা-ধস্তি হলে সাদা পোশাকধারী পুলিশ গুলি চালায়। ঘটনা স্থলে হবিবর রহমানের প্রথম ছেলে ব্রহ্মপুর ফাজিল মাদ্রাসার ফাজিল ক্লাশের ছাত্র রেজওয়ানুল হক (২২) পেটে ও বুকে গুলি বিদ্ধ হয়ে মৃত্যু বরণ করে। পুলিশের গুলিতে হবিবর রহমানের আর একপুত্র হায়দার রহমান (১৯), মা হানুফা বেগম ও স্ত্রী আম্বিায়া বেগম আহত হয়। স্ত্রী আম্বিায়া বেগমের অবস্থা আশঙ্কা জনক। ধস্তা-ধস্তি ও লাঠি-সোটার আঘাতে এ এস আই মোস্তাফিজ, কনষ্টেবল হাবিবুল্লাহ ও জাহাঙ্গীর আহত হয়েছে। আহতদের দিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসী আরও জানায়, তারা তিন থেকে চারটি গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছে। পুলিশ গুলির ঘটনা স্বীকার না করলেও এলাকাবাসী ৩-৪টি গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছে বলে জানা গেছে। চিরিরবন্দর থানার এস,আই আতোয়ার হোসেন জানান বিএনপির ওয়ার্ড সভাপতি হাবিবুর রহমান হরতাল অবরোধে গাড়িপোড়া সহ বেশ কয়েকটি মামলার আসামী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য