03.-Nasrullahআন্তর্জাতিক ডেস্ক: লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, ইরাকে তাকফিরি সন্ত্রাসীগোষ্ঠী আইএসআইএল’র বিরুদ্ধে লড়ছে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা।
সিরিয়া থেকে হিজব্ল্লুাহ যোদ্ধাদের সরিয়ে আনার কথা যাঁরা বলছেন তাদের উদ্দেশ করে নাসরুল্লাহ বলেন, ‘আসুন সিরিয়ায় হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধে যোগ দিন।’ আইএসআইএল’র হুমকি মোকাবেলায় ইরাকসহ সব জায়গায় যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, লেবাননকে রক্ষা করার এটাই সঠিক পথ।
হিজবুল্লাহর শহিদ যোদ্ধা শেখ রাগেব হার্ব, সাইয়্যেদ আব্বাস-আল মুসাভি এবং ইমাদ মুগনিয়া’র স্মরণে রাজধানী বৈরুতের উপকণ্ঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা জানান হাসান নাসরুল্লাহ। তিনি বলেন, ইরাক নিয়ে হিজবুল্লাহ এর আগে কোনো কথা বলেন নি কিন্তু দেশটি একটি স্পর্শকাতর পর্যায়ের মধ্য দিয়ে চলছে এবং সেখানে হিজব্ল্লুাহ সীমিত পর্যায়ের উপস্থিতি রয়েছে।
আল-কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কিত আন নুসরা ফ্রন্ট এবং আইএসআইএল একই নীতি, আদর্শ, সংস্কৃতি অনুসরণ করে এবং তাদের কর্মপদ্ধিতও একই বলে উল্লেখ করে নাসরুল্লাহ। তিনি বলেন, কোনো রকম বাছ-বিচার না করে চলৎ তাকফিরি স্রোতের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।
একই সঙ্গে জর্দানের দ্বিমুখী নীতিরও কঠোর সমালোচনা করেন সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ। তিনি বলেন, ইরাকে আইএসআইএল’র বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং একই সঙ্গে সিরিয়ায় আন নুসরা ফ্রন্টকে সমর্থন দিতে পারে না জর্দান। তিনি সব সন্ত্রাসীগোষ্ঠীকে একই মুদ্রা অভিন্ন রূপ বলেও উল্লেখ করেন।
আটক পাইলটকে পুড়িয়ে হত্যা করার পরিপ্রেক্ষিতে আইএসআইএল’র বিরুদ্ধে বিমান হামলা জোরদারের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছে জর্দান। আর সে সময়ে জর্দানের ভূমিকা প্রসঙ্গে এসব কথা বললেন হিজবুল্লাহ মহাসচিব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য