08_mongol grohoচিরকালের জন্য মঙ্গলগ্রহে চলে যাওয়াকে অনৈসলামিক বলে ফতোয়া জারি করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের শরিয়া কমিটি। প্রাণহানির ঝুঁকি থাকায় বিষয়টি ‘ইসলামসম্মত নয়” বলে ঘোষণা দিয়েছে কমিটি। বুধবার মিরর নিউজে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, নেদারল্যান্ডের ‘মার্স ওয়ান’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান লাল গ্রহ মঙ্গলে উপনিবেশ স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি মঙ্গলে যাওয়ার টিকেট বিক্রিও শুরু করেছে। কিন্তু বিষয়টিকে ইসলামবিরোধী বলে ঘোষণা করেছে আরব আমিরাতের শরিয়া কমিটি। সংযুক্ত আরব আমিরাতের জনোরেল অথরিটি অব ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড এনডোমেন্ট (জিএআইএই) ঘোষণা দিয়েছে, মঙ্গলগ্রহে একমুখী যাত্রার জন্য প্রলুব্ধ করা বা উৎসাহ দেয়া সেই সঙ্গে এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত থাকা ইসলাম অনুসারে হারাম। এই যাত্রায় মৃত্যুঝুঁকি রয়েছে যা ইসলামসম্মত নয়। আমিরাতের শরিয়া কমিটি বলছে, মঙ্গলে যে ব্যক্তিরা যাবেন তারা আর জীবদ্দশায় এই পৃথিবীতে ফিরে আসতে পারবেন না। এই বিষয়টিকে তারা মৃত্যুর চেয়েও যন্ত্রণার বলে দাবি করেছেন।

পাশাপাশি এই ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ যাত্রা কোন ‘ধর্মীয় উদ্দেশ্য’ ব্যতিরেকে নিজেদের ধ্বংস করার নামান্তর বলে উল্লেখ করেছে শরিয়া কমিটি। নেদারল্যান্ডসের বেসকারি মহাকাশ ভ্রমণ বিষয়ক প্রতিষ্ঠান মার্স ওয়ান ২০২৩ সালের মধ্যে লাল গ্রহ মঙ্গলে মানব বসতি স্থাপনের ঘোষণা দেয়। ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে দেয়া তাদের ওই ঘোষণা বিশ্বব্যাপী সাড়া জাগায়। অনেকেই মঙ্গলে পাড়ি জমানোর জন্য নাম তালিকাভুক্তিরও চেষ্টা চালাচ্ছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য