আতিউর রহমান, বিরল (দিনাজপুর) ॥ বিরল সায়েন্স একাডেমির আয়োজনে বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহযোগিতায় ৩য় বারের মত এবারো “বিরল গণিত উৎসব-২০১৫” অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার শিক্ষার্থীদের মধ্যে গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ক কার্যক্রম পরিচালনা করে শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের লক্ষে বিগত ৩ বছর যাবৎ বিরল সায়েন্স একাডেমি অত্র উপজেলায় কাজ করে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহষ্পতিবার সকালে জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ১ ঘন্টা ব্যাপী গণিত পরীক্ষার মাধ্যমে বিরল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে গণিত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। গণিত উৎসবে আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি)’র কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডীন ও সহযোগী অধ্যাপক ড. মামুনুর রশীদ, হাবিপ্রবি’র সহযোগী অধ্যাপক ড. শোয়েবুর রহমান, হাবিপ্রবি’র সহযোগী অধ্যাপক মোঃ কুতুব উদ্দীন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ আশরাফুল আলম, হাবিপ্রবি’র সহকারী অধ্যাপক মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন, মাইনুল হাসান মহাবিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক (গণিত) দেবেন্দ্র নাথ রায়, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আরিফ ইকবাল, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল আজাদ মনি প্রমূখ। উৎসব পরিচালনা করেন বোর্ডহাট মহাবিদ্যালয়ের প্রভাষক (ইংরেজী) বিধান কুমার দত্ত। অনুষ্ঠানে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করে নির্বাস, মুন্না, জুয়েল, সনাতন, কিনারাম, রাশেদ, সুমন, সাবুল, আনারুল, মিলন, সাদিক, সদীপসহ ৮৫ জনের ভলিন্টিয়ার দল।

উল্লেখ্য, এর আগে ৩১ জানুয়ারী/১৪ ২য় বিরল গণিত উৎসব, ৭-১১ ফেব্রুয়ারী/১৪ বিরল আবাসিক গণিত ক্যাম্প, ১২ এপ্রিল/১৪ শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নে গণিতের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা, ২৬-৩০ এপ্রিল/১৪ বিরল আবাসিক গণিত ক্যাম্প, ১০-১১ মে/১৪ শিশু কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস, ২০-২২ জুন/১৪ ড. কুদরত-ই-খুদা সামার সায়েন্স ক্যাম্প, ২৪-২৮ সেপ্টেম্বর/১৪ বিদ্যালয় ভিত্তিক গণিত অলিম্পিয়াড, ৯ অক্টোবর১৪ বিজ্ঞান ও গণিত বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক কর্মশালা, ৩১ অক্টোবর-০২ নভেম্বর/১৪ বিরল আবাসিক গণিত ক্যাম্প এর সফল আয়োজন করা হয়েছিল। এবারে গণিত উৎসবে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ৬৯১ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। জুনিয়র (৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণী) শাখায় চ্যাম্পিয়ন ৬ জন, প্রথম রানার আপ ৬ জন, ২য় রানার আপ ৬ জন, মাধ্যমিক শাখায় চ্যাম্পিয়ন ৩ জন, প্রথম রানার আপ ৩ জন, ২য় রানার আপ ৩ জন, জুনিয়র শাখায় সর্বোচ্চ নম্বর পায় সিঙ্গুল হামিদ হামিদা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী লিপি রাণী রায় ও মাধ্যমিক শাখায় সর্বোচ্চ নম্বও পায় ধর্মপুর ইউসি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র শোয়াইব আক্তার আরিফ।




মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য