মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় রমজান আলী নামে এক প্রতিবাদি যুবকের ডান হাতের কব্জি কেটে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রংপুর নগরীর চওড়ার হাট এলাকায় শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বজনরা জানায় রংপুর নগরীর জলছত্র, ময়নাকুঠি, চওড়াহাট সহ আশপার্শের এলাকায় অব্যাহত মাদক ব্যবসা বন্ধে এলাকাবাসি নিজেরাই এক জোট হয়ে প্রতিরোধ কমিটি গঠন করে। শুক্রবার বিকেলে রমজান তার দুই বন্ধু রবিউল ও সামাদ সহ মোটর সাইকেলে করে চওড়াহাট থেকে ফেরার পথে মাদক ব্যবসায়ী মান্নান ও অজিয়ারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তাদের পথরোধ করে। সন্ত্রাসীরা রমজানের উপর হামলা চালিয়ে রাম দা দিয়ে তার ডান হাতের কব্জি কেটে ফেলে। এসময় সন্ত্রাসীরা তার দু’বন্ধু সামাদ ও রবিউলকেও কুপিয়ে আহত করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রমজান ও রবিউলকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের হাসপাতালের ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানেই তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ ঘটনায় রমজানের বাবা মজনু মিয়া বাদি হয়ে কোতোয়ালি থানায় ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রানা ও একরামূল নামে দু’জনকে গ্রেফতার করলেও মূল আসামিদের গ্রেফতার করতে পারেনি। কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি রমজান আলী নামে এক যুবকের হাত কেটে নেবার কথা স্বীকার করে বলেন, দায়িদের গ্রেফতার করার জন্য অভিযান চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য