নিজেকে নিয়ে দম্ভ প্রকাশ করলেন সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। তিনি আর দশজন সাধারণ তারকার মতো নিজেকে মনে করেন না। সে কারণেই প্রিয়াংকা কারো পথ অনুসরণ করেন না। নিজেই পথ সৃষ্টি করে চলেন বলে জানিয়েছেন। ইন্দো এশিয়ান নিউজের খবরে জানা গেছে, প্রিয়াংকা মাত্র ১৭ বছর বয়সে বিশ্বসুন্দরীর খেতাব অর্জন করেন। ২০০৩ সালে ‘দ্য হিরো: লাভ স্টোরি অব এ স্পাই’ ছবির মাধ্যমে বলিউড অভিষেকের পর তাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। প্রিয়াংকা বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার পাশাপাশি গায়িকা হিসেবেও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পরিচিতি পেয়েছেন। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি মধুর ভা-ারকরের ‘ম্যাডামজি’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্র প্রযোজক হিসেবেও আত্মপ্রকাশ করেছেন। ক্যারিয়ারে তার সাফল্যের পাল্লাটাই বেশি ভারি। এ কারণেই মাত্র ৩২ বছর বয়সে গগণচুম্বী খ্যাতি অর্জনে কিছুটা অহংকারী হয়ে উঠলেও দোষের কিছু নেই। এ প্রসঙ্গে প্রিয়াংকা বলেন, ‘আমি মনে করি, আমার ব্যক্তিত্ব একেবারেই আলাদা। কারণ আমার মন যা চায়, আমি সেটাই করি। ফলাফল ভালো না মন্দ হবে, তা নিয়ে মোটেও চিন্তা করি না। আমি কখনোই জানতাম না একদিন আমি অভিনেত্রী, গায়িকা কিংবা প্রযোজক হব। ধীরে ধীরে আমি বিকশিত হয়েছি। এক কথায় বলতে গেলে, এখন পর্যন্ত আমি যা কিছু করেছি, তার সবই অনন্য।’ সূত্রটি আরো জানিয়েছে, ২০১৪ সালটা দারুণ কেটেছে বলেও জানিয়েছেন প্রিয়াংকা। কারণ এ বছর তার অভিনীত ‘গু-ে’ ও ‘মেরিকম’ ছবি দুটি দারুণ ব্যবসা করেছে। বর্তমানে প্রিয়াংকা চোপড়া ‘দিল ধারকানে দো’ ও ‘বাজিরাও মাস্তানি’ ছবির শুটিং করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য