PARBATIPUR PICমোঃ মিলন পারভেজ, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ (আপডেট) দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ট্রেন থেকে ফেন্সিডিল উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে রেলপুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। হাতাহাতির ঘটনায় সাদ্দাম হোসেন নামের এক পুলিশ সদস্য আহত হয়। ভেঙ্গে যায় তার রাইফেলের নিচের অংশ। এ ঘটনায় রেলপুলিশ ৩ বিজিবি সদস্যকে থানায় নিয়ে আটকে রাখে। সমঝোতা হলে বিজিবির সহকারী পরিচালক পার্বতীপুর রেল থানা থেকে ৭৩ বোতল ফেন্সিডিলসহ বিজিবি সদস্যদের ফুলবাড়ী ক্যাম্পে নিয়ে যায় । পার্বতিপুর রেল থানা ওসি লৎফররহমান জানান উদ্ধার কৃত মালারাল থানায় জমা না দেয়ার কারনে পার্বতীপুর রেল থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। তিনি জিডি নম্মরটি দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন, এবং মামলার প্রস্ততি চলছে বলে জানান।

জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা নীলফামারীগামী আন্তঃনগর রুপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৬টা ২৫ মিনিটে ফুলবাড়ী রেলষ্টেশনে পৌছালে ট্রেনের একটি বগিতে বিশেষ ভাবে রক্ষিত স্থানে ফেন্সিডিল উদ্ধারের সময় রেলপুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

অভিযানে নেতৃত্বদানকারী বিজিবি ফুলবাড়ী ২৯ ব্যটালিয়নের সার্জেন্ট মনিরুজ্জামান জানান, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তারা ৯ সদস্যের একটি দল ফুলবাড়ী রেল স্টেশন থেকে আন্তঃ নগর সীমান্ত ট্রেনে ওঠে। এ সময় তারা ইঞ্জিনের পিছনের ৩ নং বগিতে বিশেষ ভাবে রক্ষিত অবস্থায় ফেন্সিডিল উদ্ধারের কাজ শুরু করে। কিন্তু উদ্ধার কাজ শেষ না হতেই ট্রেনটি পার্বতীপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। তাড়াহুড়ো করে এক বিজিবি সদস্য কিছু ফেন্সিডিল ট্রেন থেকে নামতে চাইলে রেল পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এ সময় রেল পুলিশের সাথে বিজিবি সদস্যের কথা কাটাকাটি হয়।

অপরদিকে. ওই ট্রেনে দায়িত্বরত রেল পুলিশের এএসআই নাজমুল ইসলাম জানান, পুলিশ ও  বিজিবি সদস্যরা সীমান্ত ট্রেনের বিভিন্ন বগিতে তল্লাসী চালাতে থাকে। এ সময় পুলিশ কনেষ্টবল সাদ্দাম হোসেন বিজিবি’র সদস্য রফিকুল ইসলামের ইউনিফর্মে অবৈধ ভারতীয় ফেন্সিডিল দেখে প্রতিবাদ করলে রেল পুলিশ ও বিজিবি’র মধ্যে বাক-বিতান্ড হয়। এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যরা সাদ্দাম হোসেনকে ধাক্কা মারলে সে পড়ে গেলে আঘাত প্রাপ্ত হয় এবং তার রাইফেলের নীচের বাঁটের অংশ ভেঙ্গে যায়। ক্ষব্ধ রেল পুলিশ  রফিকুল ইসলাম, রুবেল হোসেন ও জামিল হোসেন নামে ৩ বিজিবি’র  সদস্য কে পার্বতীপুর রেল থানায় নিয়ে আসে। তিনি দাবি করেন ফেন্সিডিল গুলো রেল পুলিশ উদ্ধার করলেও বিজিবি সদস্যরা তা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল।

ঘটনার ব্যাপারে বিজিবির ফুলবাড়ী-২৯ ব্যটলিয়নের সহকারী পরিচালক মতিউর রহমান জানান, নিয়মিত তল্লাসীর অংশ হিসেবে অভিযান চালনোর সময় তারা ফুলবাড়ী স্টেশনের সীমান্ত ট্রেন থেকে ৭৩ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। রেলপুলিশ উদ্ধার কাজে  বাধা দিলে তাদের সাথে সামান্য বাক বিতন্ডা হয়। কোন হাতাহাতির ঘটনা ঘটেনি।

পার্বতীপুর রেল থানার ওসি একেএম লুৎফর রহমান বলেন, সীমান্ত ট্রেনে দায়িত্ব পালন করে সৈয়দপুর রেল থানা পুলিশ। তারা ৩ বিজিবি সদস্যকে আটক করে পার্বতীপুর রেল থানায় নিয়ে আসে। সকাল ১০টায় বিজিবি’র এডি মতিউর রহমানের উপস্থিতে বিষয়টি নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে আপোষ মিমাংসা হয়। পরে ফেন্সিডিল উদ্ধারের ঘটনায় পার্বতীপুর রেল থানায়  বিজিবি’র পক্ষ হতে একটি জিডি করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য