Dinajpur-25-11-14-জিন্নাত হোসেন ॥ ২৫ নভেম্বর- ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উদযাপন উপলক্ষে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পল্লীশ্রীর উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস পালন উপলক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।

২৫ নভেম্বর মঙ্গলবার দিনাজপুর জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সম্মুখ সড়কে পল্লীশ্রী আয়োজিত আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন অক্সফার্ম বাংলাদেশ এর প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর মুমতাজ হাসান। জেলা চেঞ্জমেকার এলায়েন্স এর সভাপ্রধান শাহ্ মোঃ শাহ্জাহান এর সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচী চলাকালীন সময়ে বক্তব্য রাখেন অক্সফ্যাম থেকে আগত অস্ট্রেলিয়ার কারিনা নোলন, শ্রীলংকার নিলু গুনাসেকারা, সাউথ আফ্রিকার জেনিফার বেলস্, অক্সফ্যাম বাংলাদেশের নুসরাত, সাবেক জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সন্ধা রাণী বাগচি, পল্লীশ্রীর ওয়ার্কিং টিমের কো-অর্ডিনেটর সুরাইয়া আখতার প্রমুখ। পরিচালনা করেন পল্লীশ্রীর শাহানাজ পারভীন।

আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে দিনাজপুরে মানববন্ধন Dinajpur-25-11-14---বক্তারা বলেন মেয়ে শিশু ও নারীর প্রতি বৈষম্য সর্বক্ষেত্রে বিরাজমান, যা ঘরে-বাহিরে, স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও কর্মস্থলে সর্বদা বিদ্যমান। বৈষম্য মানুষের জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রকে প্রভাবিত করে। এ কারণে মেয়ে শিশু ও নারীরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের নির্যাতনের স্বীকার কচ্ছে। ঘরে-বাহিরে কোথাও আজ মেয়ে শিশু ও নারীরা নিরাপদ নয়। বাল্য বিয়ে একটি সামাজিক আপরাধ। যে বা যারা তাদের কন্যা সন্তানকে ১৮ বছর বয়স হওয়ার আগে বিয়ের পিড়িতে বসতে বাধ্য করে, তারা একদিকে যেমন মানবাধিকার এর সার্বজনীন ঘোষনা পত্রের ১৬ (২) অনুচ্ছেদের লংঘন।

বিশ্বের যেসব দেশে বাল্য বিবাহের হার সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশ তার অন্যতম। আবার যেখানে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে সাধারণ জনগণ সোচ্চার হয়ে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলে, সেখানে অনেক সময় ন্যায় বিচার নিশ্চিত হয়। সেজন্য নারী নির্যাতনের আইগত প্রতিকারের পাশাপাশি এর বিরুদ্ধে কার্যকর সামাজিক প্রতিরাধ গড়ে তোলা জরুরী।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন সুশিল সমাজ , এনজিও, মডেল ভিলেজ, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, জেলা চেঞ্জমেকার এলায়েন্স, নার্সিং ইনষ্টিটিউট, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য