Dinajpur HSTU-17-11-14-মিজানুর রহমান মিজান ॥ দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি)’র ২ ছাত্রলীগ নেতার বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার ও ভিসি’র পদত্যাগের দাবিতে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ডাকে অনির্দিষ্টকালের ছাত্র ধর্মঘট-এর ফলে অচল হয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়। এই ধর্মঘট চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের ক্লাশ-পরীক্ষা বন্ধ থাকার ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীদের এই সংগঠনের নেতারা।

১৭ নভেম্বর সোমবার বিশ্ববিদ্যারয়ের প্রতিটি ক্লাস ছিল শিক্ষার্থী শূন্য। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ-এর নেতারা জানান, দীর্ঘ দিন যাবৎ ২টি দাবির বিষয়ে শিক্ষার্থী আন্দোলন করলেও কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহন করছে না। কর্তৃপক্ষ তাদের হটকারী সিদ্ধান্ত থেকে না এসে বরং তারা ছাত্রদের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদান করছে। যতদিন পর্যন্ত ভিসি প্রফেসর রুহুল আমিন, সাম্প্রদায়িক শিক্ষক আনিস খান এবং ছাত্র ও পরামর্শ বিভাগের কর্মকর্তা শাহাদৎ হোসেন খান লিখনের পদত্যাগ হবে না ততদিন পর্যন্ত ছাত্র ধর্মঘট অব্যাহত রাখা হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়।
Dinajpur HSTU-17-11-14---
উল্লেখ্য, গত ৪ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে হাবিপ্রবিতে ২০১৫ শিক্ষাবর্ষের অনার্স ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষায় ১০৩ নং কক্ষে অত্যাধুনিক মোবাইল ডিভাইস ব্যবহার করে নকল করার সময় রংপুরের পীরগাছা এলাকার আবুল হোসেন লিটন নামে একজনকে অটক করে দায়িত্বরত শিক্ষক। আটক আবুল হোসেন লিটন সে সময় জানায়, তাকে ৫০ হাজার টাকার চুক্তিতে ক্যালকুলেটরের ছদ্মাবরনে মোবাইল ডিভাইস দিয়েছিল তার বন্ধুর বড় ভাই। সে ঢাকা বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স পাশ করেছে। নাম তার মনির।

এ ঘটনায় হাবিপ্রবি’র কর্তৃপক্ষ বৈঠক করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক অরুন কান্তি রায় সিটন ও আবাসিক হল ডি শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেনকে সাময়িক বহিস্কার করে। ওই ২ ছাত্রলীগ নেতাকে বহিস্কারের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা ৪ নভেম্বর মঙ্গলবার রাত থেকে প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও, বিক্ষোভ মিছিল, বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করে আসছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য