06_jennifer-মাস চারেক আগে ব্রিটিশ গায়ক ক্রিস মার্টিনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান অস্কারজয়ী হলিউডের অভিনেত্রী জেনিফার লরেন্স। কিন্তু মাত্র চার মাসের মাথায় ক্রিসের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে দিয়েছেন ২৪ বছর বয়সী এ তারকা অভিনেত্রী। সত্যিই তিনি ক্রিসের সঙ্গে বিচ্ছেদের পথে হেঁটেছেন কি না, তা নিয়ে মুখ না খুললেও, কেমন মনের মানুষ চান সে বিষয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন লরেন্স।
প্রতারক লরেন্স! সম্পকের্র ধারাবাহিকতাকে ধরে রাখার ক্ষমতা আছে এমন কাউকেই মনের মানুষ হিসেবে নির্বাচিত করতে চান জেনিফার লরেন্স। আর এমন মানুষ না পেলে একাকী জীবন কাটানোর সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে জেনিফার বলেন, ‘আমার জীবনের আদর্শ মানুষটিকে অবশ্যই সম্পকের্র ধারাবাহিকতাকে ধরে রাখতে পারতে হবে। এমন মানুষ না পেলে আমি হয়তো একাকী জীবন কাটাব।’ সম্প্রতি এক খবরে এমনটিই জানিয়েছে পিটিআই।
জেনিফার লরেন্সের ফেরা! লরেন্স এবং ক্রিস মার্টিনের বিচ্ছেদের পেছনের কারণ সম্পর্কে জানা গেছে, সাবেক স্ত্রী গিনেÑ প্যালট্রোর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব ধরে রাখায় ক্রিসের সঙ্গে প্রেমের ইতি টেনেছেন লরেন্স। মার্কিন গাযড়াকা ও অভিনেত্রী গিনেÑ প্যালট্রোর সঙ্গে ক্রিস মার্টিনের বিয়ে হয়েছিল ২০০৫ সালের ডিসেম্বরে। চলতি বছরের মার্চে দাম্পত্য জীবনের ইতি টানার ঘোষণা দেন তাঁরা। তাঁদের দুই সন্তান অ্যাপল এবং মোজেসের বয়স যথাক্রমে ১০ বছর ও ৮ বছর।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য