Dinajpur Road Bolack Photo-01মোঃ মীর কাসেম লালু, বীরগঞ্জ প্রতিনিধি \ বীরগঞ্জে বাস আটো বাইক শ্রমিক সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৩জন শ্রমিক। ৩ টি অটো ভাংচুর করেছে বাস শ্রমিকরা। সংঘর্ষের জের ধরে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়ক ৪ ঘন্টা অবরোধ করে রেখেছে মটর শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

আহত দিনাজপুর শহরের ফুলবাড়ী বাস ষ্ট্যান্ড এলাকার মোঃ আলেক মিয়ার পুত্র ওয়াকার পরিবহনের বাস চালক মোঃ শাহিন (৩০), বীরগঞ্জ পৌর শহরের বাসিন্দা মৃত তেজু রাম দাশের পুত্র বাস শ্রমিক নেতা শ্রী গণেশ রাম দাশ, অটো বাইক চালক দিনাজপুর সদর উপজেলার টেক্সটাইল এলাকার মৃত তোবারক আলীর পুত্র মোঃ হামিদুর রহমান। শুক্রবার সকাল ১১টায় বীরগঞ্জ-ঝাড়বাড়ী সড়কে চৌধুরী হাট এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
Dinajpur Road Bolack Photo-03
আহত বাস চালক মোঃ শাহিন জানায় বীরগঞ্জ-ঝাড়বাড়ী সড়কে অটোবাইকে পাশ কাটিয়ে আসার সময় বাইকের পিছনে সামন্য আঘাত লাগে। পরে বীরগঞ্জ শহরের তাজমহল সিনেমা হল মোড়ে এসে অটো বাইক চালকরা বাসটিকে থামিয়ে আমার উপর হামলা চালায়।
Dinajpur Road Bolack Photo-02
অটো বাইক চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ সাইদুর রহমান অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, বাসটি যাত্রীবাহী অটোবাইকের উপর তুলে দিলে ক্ষিপ্ত যাত্রীরা বাস চালককে মরধর করেছে।

দিনাজপুর মটর শ্রমিক ইউনিয়নের বীরগঞ্জ শাখার সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, অপরাধীদের গ্রেফতার এবং মহাসড়কে অটো বাইক, নচিমন, করিমন বন্ধ না করা পর্যন্ত অবরোধ অব্যাহত থাকবে।
Dinajpur Road Bolack Photo-04
দুপুর ২টায় প্রশাসনের পক্ষে বীরগঞ্জ থানার ওসি কেএম শওকত, বাস মালিকের পক্ষে আলহাজ্ব গোলাম আজম কাজল, দিনাজপুর মটর শ্রমিক ইউনিয়নের বীরগঞ্জ শাখার সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ আলী ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ আলোচনা বসে। আলোচনা প্রশাসনের পক্ষে দাবি পুরণের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে দুপুর ২টা ৪০মিনিটে অবরোধ তুলে নিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আলোচনার বিষয়ে দিনাজপুর মটর শ্রমিক ইউনিয়নের বীরগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ আলী জানান, ঘটনায়  আহত বাস চালক মোঃ শাহিন বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২০ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। পুলিশ দ্রুত অভিযুক্তদের গ্রেফতার এবং শ্রমিকদের দাবির প্রেক্ষিতে প্রশাসন পর্যায়ক্রমে পৌর শহর থেকে অটো বাইক, নচিমন ও করিমন বন্ধ করার আশ্বাসের প্রেক্ষিতে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এ দিকে সকাল ১১টা থেকে অবরোধ অব্যাহত থাকায় মহাসড়কে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে। বীরগঞ্জ থানার ওসি কেএম শওকত হোসেন ঘটনার সত্যতার নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য