ভারতে বন্যাভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে কয়েকদিনের ভারী বর্ষণের ফলে আকস্মিক বন্যায় ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৫৫ জনের প্রাণহানি ও হাজার হাজার লোক বাস্তুচ্যুত হয়েছে। ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মেঘালয় রাজ্যে ৩৫ জন মারা গেছে। এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সংমা সাংবাদিকদের বলেন, সাম্প্রতিক কালের ইতিহাসে এবার সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া উদ্ধার তৎপরতাও ব্যহত করছে। তিনি বলেন, গত দুই দিনে পানিতে ডুবে ও ভূমিধসে এখন পর্যন্ত ৩৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিখোঁজ রয়েছে ২০ জনেরও বেশি লোক। গোটা এলাকায় সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। পার্শ্ববর্তী আসাম রাজ্যে তিন দিনের ভারী বর্ষণের পর ভূমিধসে ও পানিতে ডুবে ২০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এরপর এ রাজ্যেও সর্বোচ্চ সতর্কবাস্থা জারি করা হয়েছে। আসাম রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে এবং বিশেষ করে প্রধান নগরী গৌহাটি সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আঙ্গা মাথু বলেন, গৌহাটি গলা সমান পানিতে তলিয়ে গেছে। কেবল গৌহাটিতেই ভূমিধস ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৫ জন মারা গেছে। জনৈক এক ব্যক্তি জানান, বন্যার হাত থেকে বাঁচতে অনেকে তাদের বাড়িঘরের ছাদ ও গাছে আশ্রয় নিয়েছেন। আসাম কর্তৃপক্ষ বলেছে, বন্যার কারণে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ লোক তাদের বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। আসামের মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গৈগ বলেন, বন্যা কবলিত জেলাগুলোতে ত্রাণ কার্যক্রম ও উদ্ধার তৎপরতা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য