12_prince-আন্তর্জাতিক ডেস্ক: স্বাধীন স্কটল্যান্ড রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিতব্য গণভোটের মাত্র তিনদিন আগে বিষয়টি নিয়ে “গভীরভাবে চিন্তা” করতে স্কটিশদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটেনের রাণী এলিজাবেÑ। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিতব্য ওই গণভোটে ‘হ্যাঁ’ ভোটের সমর্থন বেশি হলে ব্রিটিশ ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে স্কটল্যান্ড। রোববার উত্তর স্কটল্যান্ডের বালমোরাল দুগের্র কাছে একটি চার্চে উপস্থিত হয়ে ব্রিটিশ রাণী এ আহ্বান জানিয়েছেন। স্কটিস অনলাইন পত্রিকা স্কটিস ডেইলি রেকডের্র প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে এ খবর জানিয়েছে সিনহুয়া।

চাচের্র প্রার্থনা শেষ হওয়ার পর নজিরবিহীনভাবে রাজদর্শনে আসা মানুষদের উদ্দেশে কথা বলতে যান রাণী এলিজোবেÑ। এ সময় ১৮ সেপ্টেম্বরের গণভোটের বিষয়ে সবাইকে গভীরভাবে ভাবার আহ্বান জানান তিনি। সাধারণত রাজনীতির ঊর্ধ্বে থাকা রাণী এই প্রথমবারের মতো স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার প্রশ্নে কথা বললেন। কালো হাতব্যাগ হাতে সবুজ রঙয়ের পোশাক পরিহিত এলিজাবেÑ স্বামী ডিউক অব এডিনবার্গ ফিলিপ মাউন্টব্যাটনকে নিয়ে ওই চার্চে যান। গত সপ্তাহে এই গণভোটকে “স্কটল্যান্ডের জনগণের বিষয়” অভিহিত করে এতে তিনি কোনো প্রভাব রাখতে চান না বলে জানিয়েছিলেন এলিজাবে-।

গণভোটে ‘না’ ভোটের পক্ষে প্রচারণাকারী পক্ষ রাণীকে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপের আহ্বান জানান। স্কটল্যান্ড বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে সম্ভাবনায় রাণী উদ্বিগ্ন হয়ে উঠছেন- প্রকাশিত এমন একটি প্রতিবেদন সূত্রে রাণীর প্রতি এ আহ্বান জানান তারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছিল, বৃহস্পতিবারের ভোটের আগে তিনি কোনো পক্ষ নিয়ে কথা বলবেন না। শনিবার, ‘হ্যাঁ’ এবং ‘না’ – উভয়পক্ষের প্রচারণাকারীরা গণভোটের আগে শেষ বারের মতো প্রচারণা চালিয়েছেন। ২০১২’র অক্টোবরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ও স্কটিস মুখ্যমন্ত্রী অ্যালেক্স স্যালমন্ড এডিনবার্গ চুক্তিতে সই করেন। এতে “স্কটল্যান্ড একটি স্বাধীন দেশ হবে কিনা” সে সম্পর্কে ২০১৪’র শরৎকালে একটি গণভোট অনুষ্ঠানের বিষয়ে সম্মতি দেয়া হয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য