রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর মোটর সাইকেলে আগুন দেয়াসহ পুলিশ ও মোটর মালিক সমিতির ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী কর্তৃক তাণ্ডব চালিয়ে মোটর শ্রমিকদের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করার প্রতিবাদে দায়িদের গ্রেফতার এবং শাস্তির দাবিতে গতকাল সোমবার সকাল ৬টা থেকে রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় অনিদৃষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু হয়েছে। রংপুর জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন ও রংপুর বিভাগীয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন যৌথভাবে এ ধর্মঘট আহবান করে। এদিকে ধর্মঘটের কারণে রংপুর বিভাগের ৮ জেলার সাথে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সকল যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সকাল থেকে রংপুর বিভাগের কোন জেলা থেকেই ঢাকা সহ আন্তঃ জেলায় চলাচলকারি সকল যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। একই ভাবে রংপুরের আন্তঃ জেলা সহ অব্যান্তরীন ২৬টি রুটে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। উল্লেখ্য রোববার সন্ধ্যায় রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে পাল্টা পাল্টি টোল আদায় টার্মিনালের কতৃর্ত্ব নিয়ে রংপুর জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন ও জেলা মোটর মালিক সমিতির লোকজনদের মধ্যে প্রথমে কথাকাটাকাটি হাতাহাতি হয়। পরে তা ভয়াবহ সংঘর্ষে রুপ নেয়। সন্ধ্যা ৬ টা থেকে রাত সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত একটানা দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া রপাল্টা ধাওয়া আর সংঘর্ষ চলে। এ সময় মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে হামলৈা ভাংচুর দুটি মোটর সাইকেলে আগুন দেয়া সহ বেশ কয়েকটি যান বাহন ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ দেড় শতাধিক রাউন্ড রাবার পুলিশ ও গুলি বর্ষণ করে। সংঘর্ষে অন্তত ২৫ জন আহত হয়। এদের মধ্যে ৫জনকে গুরুতর অবস্থায় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য