Kashi-3কাশী কুমার দাস ॥ পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে  প্রবীণ জনগোষ্ঠি প্রত্যেকেটি ক্ষেত্রে প্রতিনিয়ত বৈষম্য ও অবহেলার শিকার হচ্ছে বলে মনে করেন দিনাজপুরের গণমাধ্যমকর্মীরা। প্রবীণ ব্যক্তির প্রতি অবহেলা-বৈষম্য কমিয়ে এনে প্রবীণদের উপর সকল প্রকার সহিংসতা রোধে গণমাধ্যমের ভুমিকা অনস্বীকার্য এবং তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আমরা গণমাধ্যম কর্মীরা সংবাদ মাধমে তাদের কথা তুলে ধরব বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন  দিনাজপুর প্রেক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল।

শনিবার সকাল ১০ টায় দিনাজপুরের এফপিএবি হলরুমে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা বহুব্রীহি’র আয়োজনে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর আর্থিক ও হেল্পএইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর সহযোগীতায় “প্রবীণ অধিকার সুরক্ষায় সাংবাদিকদের পরামর্শ” শীর্ষক এক অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় তিনি এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

“প্রবীণ অধিকার সুরক্ষায় সাংবাদিকদের পরামর্শ” সভার সেশন পরিচালনা করেন এই (সাংস্কৃতিক ক্যাম্পেইন ও গণমাধ্যম উদ্যোগে প্রবীণ অধিকার সুরক্ষা’-নামক) প্রকল্পের দাতাসংস্থা হেল্পএইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ –- এর প্রকল্প কর্মকর্তা (দক্ষতা ও উন্নয়ন) পবিত্রা মান্দা ও প্রকল্প কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন।

সভায়, প্রবীণ ইস্যু নিয়ে সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে গ্রুপ ওয়ার্কের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা ও তা থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।সভায় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা বহুব্রীহি’র নির্বাহী পরিচালক মোঃ জাকির হোসেন- তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, “ আমরা মানুষের সেবা করতে চাই, বহুব্রীহি বিভিন্ন সেবামূলক কাজ করে।

কিন্তু বহুব্রীহি প্রকল্প আমাদের প্রবীণ বাবা-মা জন্যে। আজ থেকে আপনারা এমন একটা কাজের সাথে যুক্ত হলেন যা নিসন্দেহে মহৎ কাজ।  দিনাজপুর, ফুলবাড়ি, বিরামপুরের ৩৩ জন সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন। বহুব্রীহি দিনাজপুরে “সাংস্কৃতিক ক্যাম্পেইন ও গণমাধ্যম উদ্যোগে প্রবীণ অধিকার সুরক্ষা”- নামক ৩ বছর মেয়াদী প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।গণমাধ্যমকর্মী  ও বিশিষ্ট লেখিকা জিনাত রহমান বলেন, “অনেকদিন থেকে আমার ভিতরে একটা চাপা কষ্ট ছিল যে, যা আমি খুঁজে বেরিয়েছি, তবে তা আমি পায়নি। আজ এখানে এসে মনে হল আমি নিজে প্রবীণ হয়ে যাচ্ছি, অনেক কিছু নিয়ে লিখি কিন্তুু একজন প্রবীণ নিয়ে আমার লেখা হয়নি। যা মনে হচ্ছে আমার চাপা কষ্টের কারণ। তাই এখন থেকে প্রবীণ নিয়ে লিখবো,কাজ করব।

গণমাধ্যমকর্মীরা বলেন, আমরা ঐতিহ্যবাহী গান জারি, সারি, ভাওইয়া,পল্লীগীতি,কবিগান চর্চাকারী শিল্পীদের গানের মাধ্যমে প্রবীনণদের  অধিকার সুরক্ষার কথা বলবে শিল্পীরা । আমরা তা গণমাধ্যমে তুলে ধরবো । সভার আয়োজনে ছিলেন প্রকল্পের জেলা সমন্বক মলয় কুমার সরকার, মিডিয়া এন্ড ক্যাম্পেইন অফিসার মো : আখিদুজ্জামান আখিব, সোস্যাল মবিলাইজেশন অফিসার, ফিন্যন্স এন্ড এডমিন অফিসার শ্যামল মহন্তসহ আরো অনেকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য