কুড়িগ্রামের চিলমারী ডিগ্রী কলেজের দু’জন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ’কে কেন্দ্র করে অভ্যন্তরীণ কোন্দল চরমে উঠেছে। কলেজে তালা। কমিটির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের। অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মোঃ আবুল কাশেম গত ৩১ ডিসেম্বর/১৩ অবসর গ্রহন করেন। পরে উপাধ্যক্ষ মোঃ শামস উদ্দিন সরকারকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব প্রদান করে ১৫ দিনের মধ্যে অধ্যক্ষ নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয় কতৃপক্ষ। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ওই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু না করে গর্ভনিং বডির দু’জন বিদ্যোৎসাহী সদস্যকে বাতিল করে দু’জন সদস্যকে অর্ন্তভুক্ত করে। এতে গর্ভনিং বডি ও শিক্ষক-কর্মচারীরা দু’টি গ্র“পে বিভক্ত হলে অভ্যন্তরীণ কোন্দল চরমে ওঠে।  অভিযোগ সুত্রে আরো জানা যায়, এর পেক্ষিতে গত ১৯ জুলাই গর্ভনিং বডির সভাপতি সাবেক মন্ত্রী একে এম মাইদুল ইসলাম মুকুল এমপি’র সভাপতিত্বে ঢাকায় গর্ভনিং বডির এক সভায় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শামস উদ্দিন সরকারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করে। এবং আনোয়ারুল বারীকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মনোনীত করে। এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শামস উদ্দিন সরকার কুড়িগ্রাম দায়রা জজ আদালতে কলেজ গর্ভনিং বডির সভাপতি সাবেক মন্ত্রী একে এম মাইদুল ইসলাম মুকুল এমপি, সাবেক এমপি গোলাম হাবিব দুলালসহ সকল সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এদিকে প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনসহ সুষ্ঠ শিক্ষা ব্যবস্থার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবিতে স্থানীয় জনতা ও শিক্ষার্থীরা অনির্দিষ্ট কালের জন্য কলেজে তালা লাগিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য