Chintiমোঃ আফজাল হেসেন,ফুলবাড়ী : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী রেল স্টেশনে যাত্রীকে আটক করে ৭হাজার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে । ঘটনার বিবরণে যানাযায় গতকাল ৯ আগষ্ট শনিবার রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার দি-মানিক চর গ্রামের মতিয়ার রহমানের পুত্র মোঃ জামাল (৩৫) ফুলবাড়ী উপজেলার মাদিলা হাট এলাকায় ট্রাকট্রার দিয়ে জমি চাষ করে উপার্জতিত টাকা নিয়ে বাড়ী যাচ্ছিলেন। এসময় মতিয়ার রহমানের পুত্র মোঃ জামাল পার্বতীপুর থেকে রাজশাহী গামী বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট সকাল ৭টায়  কাউন্টারে দাড়িয়ে কাটার সময় তিনি ৫ শত টাকার ১টি নোট দেন । টিকিট কাউন্টারে থাকা প্রটারম্যান মোঃ ইমরান হোসেন তাৎক্ষনিক জামালকে বলেন, আপনার টাকাটি জাল নোট। এসময় রেলওয়ের যাত্রী জামাল নোটটি ফেরত নিয়ে আর একটি টাকা দেন এবং তাকে বরেন্দ্রর টিকিট প্রদান করেন। এসময় প্রটারম্যান মোঃ ইমরান হোসেন  বাহিরের কিছু সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে ট্রেনের যাত্রী জামালকে অন্য একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে আটক করে পুলিশ ও বিজিবির সোর্স নামে পরিচিত মোঃ আনছারুল ইসলাম তার কাজ থেকে ৭হাজার টাকা ছিনতাই করে নেয়। সকাল থেকে তারা টাকা উদ্ধার এর জন্য চেষ্টা করলে তাকে ভয় ভীতি দেখার কারনে জামান বরেন্দ্র ট্রেনে বাড়ী যেতে পারেনি। যার টিকিট নং সি এন বি -০৭৮২৯৭০৯-৭৩২ তারিখঃ ০৯-০৮-২০১৪ । এব্যাপারে স্থানীয় লোকজন ৪হাজার  টাকা উদ্ধার করে দিলেও বাকী ৩হাজার টাকা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলে ট্রেনের যাত্রী জামাল জানান। এব্যাপারে ফুলবাড়ী স্টেশন টিকিট কাউন্টারে থাকা গোপালগঞ্জ জেলার প্রটারম্যান ইমরান হোসেন কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন , ঘটনা ঘটেছে বাহিরে কি হয়েছে আমার জানা নাই। এদিকে ঐ সময় সকালে ডিউটিতে ছিলেন, প্রধান স্টেশন মাষ্টার আব্দুল বারি । বিকেলে সহকারী স্টেশন মাষ্টার  আব্দুল ছাত্তার এর সাথে কথা বললে তিনি জানান আমি এই মাত্র দায়িত্ব নিলাম সকালে কি ঘটেছে তা আমি জানি না । তবে স্টেশন এলাকার সতাধিক এলাকাবাসী জানান স্টেশন মাস্টার স্টেশনের দায়িত্ব ভার পাওয়ার পর স্টেশন এলাকায় যা ইচ্ছে তাই করছেন। এমনকি রেলওয়ের টিকিট যাত্রীরা না পেয়ে চোরাই পথে বেশি দামে চায়ের দোকান দার ও পানের দোকানদার দের নিকট বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। উল্লেখ্য যে পুলিশ ও বিজিবি সোর্স নামে পরিচিত আনছারুল ইসলাম যাত্রীদের ব্যাগ তল্লাশী সহ যাত্রীদেরকে অযথা হয়রানী করার অভিযোগ উঠেছে। এতে পুলিশ ও বিজিবির সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে। এব্যপারে এলাকাবাসী পুলিশ প্রশাাসনের ও রেলওয়ের জিআরপির পুলিশ ও রেলওয়ের উদ্ধর্তন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য