কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেরার কাশিপুর সীমান্তে প্রেমেরটানে ভারত থেকে ছুটে আসা ফিরোজা আক্তার ফিরোকে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে গতকাল ফেরত দিল বিজিবি।  বিজিবি ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত ৩১ জুলাই শুক্রবার সন্ধায় উপজেলার কাশিপুরের সীমান্তবর্তী ধর্মপুর গ্রামের কলেজ পড়ুয়া মঈনুল হকের ছেলে মোঃ রুবেল মিয়ার প্রেমে টানে ভারতীয় কোচবিহার জেলাধীন দিনহাটা থানার সীমান্ত গ্রাম সেউটি-২ এলাকার ধাপরারহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ফজলুর রহমানের মেয়ে ফিরোজা খাতুন ফিরো বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রেমিক রুবেলের বাড়ীতে আসে। তার ইচ্ছে ছিল বাংলাদেশী প্রেমিক রুবেলের সঙ্গে ঘর বাধার, কিন্তু তা হলনা। বিষয়টি ভারত বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষিরা জানতে পেরে গতকাল প্রেমিক রুবেলের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ফেরত দেয় বিজিবি। গতকাল রবিবার বেলা ২.৪০ থেকে ৩.১০ মিনিটের সময় আন্তর্জাতিক পিলার নং ৯৪৩ এর পাশে ইসাহক আলী বানোর বাড়ীর উঠানে ৩০ মিনিট বিজিবি বিএসএফ পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে তার বাবা ফজলুর রহমানের কাছে হস্তান্তর করে। এ সময় বাংালাদেশের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ৪৫ কুড়িগ্রাম বিজিবি“র কাশিপুর কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার ইমরান নিজামি ও কাশিপুর ইউপি সদস্য ফেরদৌস হাসান। ভারতের পক্ষে ১৮১ বিএসএফ সেউটি ক্যাস্পের এসি এমএস শর্মা ও ভারতীয় পুলিশের দিনহাটা থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক নির্মল দাস ও গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান বিষ্ণু কুমার সরকার এবং মাহাবুব রহমান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য