07. Israel attacksআন্তর্জাতিক ডেস্ক : হামাসের যোদ্ধারা ২৪ ঘন্টার মানবিক যুদ্ধবিরতির শর্ত লঙ্ঘণ করেছে অভিযোগ করে গাজায় আবার হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল। এর আগে শনিবার ১২ ঘন্টার যুদ্ধবিরতি সফলভাবে শেষ হওয়ার পর জাতিসংঘের অনুরোধে বিরতি আরো ২৪ ঘন্টা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিল ইসরায়েলি মন্ত্রীসভা। রোববার মধ্যরাতে নতুন এই যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর জাতিসংঘের ওই প্রস্তাব আগেই প্রত্যাখান করেছিল হামাস। যুদ্ধবিরতির সময়টিকে নতুন হামলা চালানোর প্রস্তুতি হিসেবে ব্যবহার করেছে ইসরায়েল, এই অভিযোগ করে ইসরায়েলি সেনারা গাজা ছেড়ে না যাওয়া পর্যন্ত নতুন কোনো যুদ্ধবিরতি মানবে না বলে জানিয়েছিল হামাস। আর ইসরায়েলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, যুদ্ধবিরতি চলাকালেও হামাসের সুড়–ঙ্গের বিরুদ্ধে অভিযান বন্ধ করবে না তারা। এরপরই রোববার এক বিবৃতিতে হামাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে লড়াই আবার শুরু করার ঘোষণা দেয় ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। বিবৃতিতে বলা হয়, “গাজার বেসামরিক জনগণের কল্যাণের কথা বিবেচনা করে যাতে সম্মতি দেয়া হয়েছিল, সেই মানবিক বিরতির এই সময়টিতে হামাসের অনবরত রকেট নিক্ষেপ জেরে এখন গাজা ভূখন্ডে সেনাবাহিনী আবার আকাশ, নৌ ও স্থল পথে তৎপরতা শুরু করতে যাচ্ছে। এই ঘোষণার কিছুক্ষণের মধ্যেই গাজার বাসিন্দারা গাজা শহরের পূর্ব দিকে ব্যাপক গোলাবর্ষণের আওয়াজ শোনা যাওয়ার কথা জানিয়েছেন। শনিবারের যুদ্ধবিরতি শেষে হামাসের সশস্ত্র শাখা কাসাম বিগ্রেড ইসরায়েলে দুটি দীর্ঘ পাল্লার ও পাঁচটি স্বল্প পাল্লার রকেট নিক্ষেপ করার কথা জানিয়েছিল। ৮ জুলাই থেকে শুরু হওয়া গত ২০ দিনের ইসরায়েলি হামলায় গাজায় ১০৫০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন যাদের অধিকাংশই বেসামরিক, আর ইসরায়েলি পক্ষে ৪২ সেনা ও তিন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য