33_FNS_N_08-02-14আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের জনসমর্থন ‘শূন্যের কোঠায়’ মন্তব্য করে বিএনপির মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনসমর্থনহীন সরকার টিকবে না ‘গণআন্দোলনেই’ তাদের পতন হবে।

গতকাল শনিবার সকালে শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবর প্রাঙ্গণে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ৫ জানুয়ারির প্রহসনের নির্বাচনে এই সরকার ক্ষমতায় বসেছে। এটি জনসমর্থনহীন, অবৈধ ও অসাংবিধানিক সরকার। এ ধরনের সরকার কখনো বেশিদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারে না।

গত সপ্তাহে উচ্চ আদালতের জামিনে মুক্ত বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমূল বিশ্বাসসহ নেতাকর্মীদের নিয়ে সকালে জিয়ার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ফখরুল।

প্রয়াত নেতার আত্মার শান্তি কামনায় মোনাজাতের পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আওয়ামী লীগ কখনো গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। ১৯৭৫ সালে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করে তারা গণতন্ত্র হত্যা করেছিল। এবারো ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন নির্বাচন করে দ্বিতীয়বার গণতন্ত্রকে হত্যা করল।

বিএনপিকে ‘নিশ্চিহ্ন করে একদলীয় শাসন কায়েম’ করাই বর্তমান সরকারের উদ্দেশ্য বলেও তিনি মন্তব্য করেন। আমরা মনে করি, জনগণের দূর্বার আন্দোলনেই এ সরকারের পতন হবে।

ফখরুল বলেন, এ দেশের জনগণ কখনো স্বৈরাচার-একনায়কতন্ত্র মেনে নেয়নি। এবারো ‘সরকারের এই নীল নকশা’ বাস্তবায়িত হতে দেবে না। নতুন করে আন্দোলনের জন্য দল গোছানোর বিষয়ে সাংসাবিদদের প্রশ্নের জবাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, দল গোছানোর বিষয়টি চলমান প্রক্রিয়া। সেভাবেই কাজ চলছে।

অন্যান্যের মধ্যে বিএনপির সহসভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শাহজাহান ওমর, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট জয়নুল আবেদিন, বিএনপির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, সহ দপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীমসহ সুপ্রিম কোর্টের কয়েকজন আইনজীবী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য