003_syria-crisis-জাতিসংঘে রাশিয়ার দূত বুধবার জানিয়েছেন, সিরিয়ায় দুর্গত লোকদের জরুরি খাদ্য ও চিকিৎসা সরবরাহ পাঠানোর জন্য মানবিক সাহায্যের দাবি জানিয়ে করা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের একটি প্রস্তাবের মস্কো বিরোধিতা করেছে।
কূটনীতিকরা জানান, কোন সুস্পষ্ট ফলাফল ছাড়াই সিরিয়া ও বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলোর মধ্যকার আলোচনা থেমে যাওয়ার পর থেকেই সিরিয়ার বিরোধী দলকে সমর্থন জানানো পশ্চিমা ও কিছু আরব দেশ এ সপ্তাহের নিরাপত্তা পরিষদের সভায় উত্থাপনের জন্য একটি খসড়া প্রস্তাব তৈরি করেছে।
রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভিতালি চার্কিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটি একটি অনেক আগাম পদক্ষেপ। আমরা মনে করি যে, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে সিরিয়া সংক্রান্ত কোন প্রস্তাব আলোচনা করার এখন সঠিক সময় নয়। এ ক্ষেত্রে আমার উদ্বেগ হচ্ছে সেখানে কোন প্রস্তাব গ্রহণ করা হলে তা হবে রাজনৈতিক পক্ষপাত দুষ্ট।’
তিনি মস্কোর ঘনিষ্ঠ মিত্র দেশ সিরিয়াকে এগিয়ে নিতে ‘দূরদর্শী দৃষ্টিভঙ্গি’ গ্রহণের আহ্বান জানান।
তবে সিরিয়া বিষয়ে জরুরি মানবিক সাহায্যের সম্ভাব্য একটি প্রস্তাবের ব্যাপারে রাশিয়া তাদের ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করাব কিনা সেব্যাপারে চার্কিন কিছু বলতে অস্বীকৃতী জানান। উল্লেখ্য, ২০১১ সালে মার্চে সিরিয়া সংঘাত ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে এ পর্যন্ত রাশিয়া তিনবার তাদের ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে।
ফ্রান্স, ব্রিটেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং অস্ট্রেলিয়া, জর্ডান ও লুক্সেমবার্গের মতো পরিষদের অপর সদস্য দেশ এ খসড়া প্রস্তাবের আলোচনায় রাশিয়াকে ছাড়াই বৈঠক করে। প্রস্তাবটি তৈরির কাজ এখনো শেষ হয়নি।
জাতিসংঘের মতে, সিরিয়ায় ৩০ লাখ বেসামরিক নাগরিক সহিংসতায় আটকে পড়েছে। এ ক্ষেত্রে কেবলমাত্র অবরুদ্ধ হোমস নগরীতে আড়াই হাজারের বেশি লোক এক ধরনের বন্দি জীবন যাপন করছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য