জেলার পীরগঞ্জে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের এক আয়ার কাছে এমআর করতে গিয়ে ৩ মাসের অন্তসত্তা এক গৃহবধুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মৃত গৃহবধুর বাড়ী উপজেলার সাটিয়া গ্রামে। ঐ গ্রামের আকতারুল ইসলাম তার ৩ মাসের অন্ত:স্বত্তা স্ত্রী রাজেতন নেছা (৩৫) এর এমআর করার জন্য ২৯ জুন বিকেলে উপজেলার লোহাগাড়া পরিবার পরিকল্পনা ক্লিনিকের আয়া শহেদার সাটিয়াস্থ বাড়ীতে নিয়ে যায়। শহেদা গৃহবধুর এমআর করলে তার অস্বাভাবিক রক্তক্ষরন শুরু হয়। পরে নিজ বাড়ীতে চিকিৎসাবিহীন অবস্থায রাত ১০ টার দিকে গৃহবধুর মৃত্যু ঘটে। বিষয়টি থানা পুলিশের নজরে গেলে পুলিশ ৩০ জুন সকালে মৃতদেহ উদ্ধার পূর্বক ময়না তদন্তের জন্য ঠাকুরগাও মর্গে প্রেরন করে। এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ থানায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। খোজ নিয়ে জানা যায়, ঐ আয়া ইতিপূর্বেও অবৈধভাবে এমআর করতে গিয়ে এক মহিলার মৃত্যু ঘটিয়েছিল। সে যাত্রায় উপযুক্ত কোন শাস্তি না হওয়ায় এ ঘটনার পূনরাবৃত্তি ঘটল বলে সচেতন মহলের ধারনা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য