arr3বেলাল উদ্দিনঃ বাংকার সুলতান গ্রেফতার হওয়ার পর পার্বতীপুরের যোশাই সৈয়দপুর হাজীপাড়াসহ আশেপাশে এলাকায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধ হয়ে গেছে। স্বস্তি পেয়েছে এলাকার মানুষ। অন্যদিকে বাংকার সুলতানকে মুক্ত করতে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল শুরু করেছে বিভিন্ন উচ্চ মহলে দৌড়ঝাপ। তার নামে চিরিরবন্দর থানায় একটি মামলা রয়েছে যার নং-১০ এবং এছাড়াও জি. আর ১৭৬ সহ অনেক মামলা রয়েছে।

খবরে জানা যায় গত ৩১ মে পার্বতীপুর থানাধীন সৈয়দপুর হাজীপাড়ার মৃত আলীম উদ্দিনের পুত্র বাংকার সুলতানকে তার নিজ বাসভবন থেকে গ্রেফতার করে পার্বতীপুুর মডেল থানা পুলিশ। সে আত্মরক্ষার জন্য বাসভবনের মাটির গর্তে নির্মানকৃত পাকা বংকারের মধ্যে লুকিয়ে ছিল। সেই বাংকার থেকেই পুলিশি অভিযানে সে আটক হয়। বর্তমানে সুলতান জেল হাজতে রয়েছে। এদিকে বাংকার সুলতান মুক্ত থাকা অবস্থায় যাদের পক্ষে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যেত তারা পড়েছেন বিপাকে, যদি কোন মতে তাদের নাম ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে মদদ দাতা হিসাবে তাদের নাম বেড়িয়ে আসে এই ভেবে তারা আতংকে দিন পার করছে।

একাধিক মামলার আসামী ও চিরির বন্দরের বলাই বাজারে ঘটে যাওয়া সাম্পদায়িক দাঙ্গায় লুটপাটের নথি ভূক্ত এই বাংকার সুলতান একসময় এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। কত বড় মাপের সন্ত্রাসী বাংকার সুলতান ছিল যে, তাকে আত্মরক্ষার জন্য নিজের বাড়িতে মাটির নিচে শক্ত বাংকার তৈরি করে সেখানে লুকিয়ে থাকতে হত। আর যাতায়াত করতে হত মাটির নিচের সুরঙ্গপথে। তাকে মুক্ত করতে একটি মহলের দৌড়ঝাপ শুরু করাটা রহস্যাবৃত ও রোমঞ্চকর বটে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য