রেল গেটশাহ্ আলম শাহী,দিনাজপুর থেকেঃ ১৫৬৮ কিলোমিটার দীর্ঘ পশ্চিমাঞ্চল রেলপথ জুড়ে ১২৪৯টি রেল গেটে রয়েছে। এর মধ্যে ২৭১ টি রেল গেট অবৈধ বলে জানা গেছে। একই সাথে গেটম্যান ছাড়াই ৭৫৭টি রেল গেট চালু রয়েছে। আর প্রয়োজনীয় লোকবলের অভাবে পশ্চিমাঞ্চল রেলের স্বাভাবিক ট্রেন চলাচল ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। ফলে রেল গেট দিয়ে সড়ক পথে চলাচলকারী যান বাহন প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। আর বাড়ছে পরিবহন ব্যবস্থায় যাত্রীদের ভোগান্তি।

পশ্চিমাঞ্চল রেলপথে পর্যাপ্ত গেটম্যানের অভাবে রেল ক্রসিং এ দূর্ঘটনার সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম প্রতিনিয়ত বিঘিœত হচ্ছে। রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের সড়ক ব্যবস্থার উন্নয়নের কারনে অনুমোদনহীন রেল ক্রসিং এর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সঙ্গে বেড়েছে গেটম্যান ছাড়াই রেল ক্রসিং এর সংখ্যা।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, পশ্চিমাঞ্চল রেলে ১২৪৯টি রেলগেট রয়েছে। এরমধ্যে গেটম্যান ছাড়াই চলছে ৭৫৭টি আর ২৭১ টি রেল গেট রয়েছে অবৈধ। ফলে ট্রেন চলাচলের সময় রেলগেটে বেরিয়ার না থাকায় প্রায়ই ট্রেনের সঙ্গে সংঘর্ষে বাড়ছে হতাহতের সংখ্যাও।

গত এক বছরে এ অঞ্চলে রেল দূর্ঘটনা ঘটেছে ৫৭টি আর রেল গেটে ট্রেনের সাথে অন্যান্য যাবাহনের ধাক্কায় এবং ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ১১ জন নিহত ও আহত হয়েছেন ৬৫ জন।

এদিকে গেট ও গেটম্যান না থাকায় রেলগেট দিয়ে পথচারীদের রাস্তা পারাপারের সময় নিতে হয় বিশেষ সতর্কতা। কোন উপায় না থাকায় ভীতি ও আতংক নিয়েই পারাপার হতে হয় এসব পথের যাত্রীদের। এছাড়াও, অদক্ষ রেলকর্মী, রেল গেটের কাছের গাছ ও বস্তি এবং কিছু মানুষের অসতর্কতার কারনে বারবার রেল দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল জেনারেল ম্যানেজার আবদুল আউয়াল ভূঞা জানিয়েছেন,  লোকবল সংকট, অঅনুমোদিত গেট এবং গেটম্যানের স্বল্পতার কথা স্বীকার করে বলেন, রেলগেট গুলোর উন্নয়ন ও লোকবল নিয়োগের উদ্দ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে সংকট অনেকটাই কেটে যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য