রমেক হাসপাতালে ভারতীয় নাগরিকের লাশ ৭ মাস থেকে পড়ে আছে

রমেক হাসপাতালে ভারতীয় নাগরিকের লাশ ৭ মাস থেকে পড়ে আছে

রংপুর

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে ৭ মাস থেকে ভারতীয় নাগরিক প্রবীর মন্ডলের (৪১) লাশ পড়ে রয়েছে।

পাটগ্রাম পুলিশ ও রমেক হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার নিমচা মৈত্রি স্ট্রিট এম আলম বাজার এলাকার মহাদেব মন্ডলের পুত্র প্রবীর মন্ডল ২০১৮ সালে ১৬ মার্চ বাংলাদেশে এসে ঢাকায় অবস্থান করেন। তিনি ছোটখাট ব্যবসা করতেন। ঢাকায় অবস্থান কালেই তার পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যায।

পরে তিনি পাতানো এক বোনকে নিয়ে পাটগ্রামের পৌর এলকায় ব্যাংককান্দা এলাকায় একজনের বাড়িতে উঠেন। গত বছরের ৮ নভেম্বর তিনি অসুস্থ হলে তাকে পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে তিনি মারা যান। পরে লাশটি লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। লালমনিরহাট হাসপাতাল থেকে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য রমেক হাসপাতালে পাঠান।

ময়না তদন্ত শেষে লাশটি রমেক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়। সেখানেই এখন পর্যন্ত লাশটি রয়েছে। পুলিশ বলছে এখন পর্যন্ত ময়না তদন্ত ও ভিসেরা রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

যে মেয়েটিকে সাথে করে প্রবীর মন্ডল পাটগ্রামে এসেছিল তাকে জিজ্ঞসাবাদ করে অভিভাবকের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। ময়না তদন্ত ও ভিসেরা রিপোর্ট না আসায় মৃত্যুর সঠিক কারণ জানাযায়নি। তবে এ বিষয়ে এ্কটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।

পাটগ্রাম থানার ওসি ওমর ফারুক জানান, এ বিষয়ে ভারতীয় দূতাবাসকে জানানো হয়েছে। মৃতের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। লাশ হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধিন রয়েছে।

রমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা, রেজাউল করিম বলেন, হিমঘরে অনুমতি সাপেক্ষ লাশ রাখার ব্যবস্থা রয়েছে। লাশ হস্তান্তরের প্রক্রিয়াটি তিনি অবগত নন বলে জানান।