বিধিনিষেধ আরও শিথিল হচ্ছে বেইজিংয়ে

বিধিনিষেধ আরও শিথিল হচ্ছে বেইজিংয়ে

আন্তর্জাতিক

সংক্রমণ কমে যাওয়ায় রাজধানীর রেস্তোরাঁ ও বারগুলোতে বসে খাওয়ার অনুমতি দিয়ে কর্তৃপক্ষ কোভিড বিধিনিষেধ আরও শিথিল করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ধরনের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দুই মাসের কষ্টকর লকডাউন শেষে সাংহাই ও বেইজিং সাম্প্রতিক দিনগুলোতে একটু একটু করে স্বাভাবিক হচ্ছে।

বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ায় এখন সোমবার থেকে ফেংতাই জেলা ও চাংপিং জেলার কিছু অংশ বাদে বেইজিংয়ের সর্বত্র ডাইন-ইন বা খাবারের দোকানে বসে খাওয়া ফের শুরু হতে যাচ্ছে বলে বেইজিং ডেইলির বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

চীনের এ রাজধানীতে মে মাসের শুরুর দিক থেকে রেস্তোঁরা ও বার থেকে কেবল খাবার কিনে নেওয়া যেত, ভেতরে বসে খাওয়া যেত না।

সোমবার থেকে বেইজিংয়ের বেশিরভাগ এলাকায় স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরু হচ্ছে, গাড়ি চলাচলে যে বিধিনিষেধ ছিল তাও তুলে নেওয়া হচ্ছে। তবে কিছু কিছু এলাকার কর্মীদের ঘরে থেকেই কাজ করতে হবে।

জনসমাগম হয় এমন স্থানে ঢুকতে বা গণপরিবহনে উঠতে হলে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করা পিসিআর টেস্টের ফল দেখাতে হবে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় বেইজিংয়ে স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত উপসর্গধারী নতুন ১৬ কোভিড রোগী মিলেছে। আগের ২৪ ঘণ্টায় এ সংখ্যা ছিল ১১।

উপসর্গ নেই এমন নতুন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে তিনজন, আগের দিনও এই সংখ্যা ছিল ১।

চীন উপসর্গধারী রোগী ও যাদের উপসর্গ নেই তাদের আলাদা তালিকা করে।

সাংহাইয়ে সর্বশেষ উপসর্গধারী নতুন ৬ রোগী শনাক্ত হয়েছে, উপসর্গ নেই এমন রোগী পাওয়া গেছে ১৬ জন।

সব মিলিয়ে চীনের মূল ভূখণ্ডে এ পর্যন্ত উপসর্গধারী কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে ২ লাখ ২৪ হাজার ৩১০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ২২৬ জনের।