পাবনার সাঁথিয়ায় আওয়ামী লীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

পাবনার সাঁথিয়ায় আওয়ামী লীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

রাজশাহী

পাবনার সাঁথিয়ায় বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যানের বিরোধের জেরে আব্দুল মতিন (৪২) নামে এক আওয়ামী লীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হন তাঁর চাচাতো ভাই জুয়েল রানা (৪০)।

পুলিশ জানায়, উপজেলার নাগডেমরা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমানের সঙ্গে ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। মাঝেমধ্যেই দুই গ্রুপের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলা, সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

শনিবার রাতে সাঁথিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন সাবেক চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদের আপন ছোট ভাই জুয়েল ও তার চাচাতো ভাই মতিন। অভিযোগ, পথিমধ্যে পৌর সদরের আউলাঘাটা ঘোনারচর নামক স্থানে ইছামতি নদীর পারে বর্তমান চেয়ারম্যান হাফিজ গ্রুপের সন্ত্রাসীরা তাঁদের ওপর হামলা করে এলোপাতাড়ি কোপায়। এ সময় মতিন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আর জুয়েল ইছামতি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও নিহত মতিনের মরদেহ উদ্ধার করে।

সাঁথিয়া থানার ওসি আসিফ মো. সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, নাগডেমরা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ বাদী হয়ে নাগডেমরা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমানকে প্রধান আসামি করে ১৯ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এলাকা থেকে প্রদান আসামি নাগডেমরা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ও সাইদ নামে অন্য এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকি আসামি ধরতে অভিযান চলছে।