সাদিও মানের হ্যাটট্রিকে সেনেগালের জয়

সাদিও মানের হ্যাটট্রিকে সেনেগালের জয়

খেলা

আফ্রিকান নেশন্স কাপের শিরোপা ধরে রাখার মিশনে প্রথম ম্যাচেই দারুনভাবে সফল হয়েছে সেনেগাল। দলের প্রাণ ভোমরা সাদিও মানের হ্যাটট্রিকে শনিবার বেনিনকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ২০২৩ আফ্রিকান নেশন্স কাপের বাছাইপর্ব শুরু করেছে সেনেগাল। এই ম্যাচের আগে গণমাধ্যমে মানে আগামী মৌসুমে লিভারপুল ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

গ্রুপ-এল’র ম্যাচটির আগে মানে বলেছেন, ‘সেনেগালের জনগন যা চায় আমি সেটাই করবো। অন্যদের মতই আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফলো করি, সকলের মন্তব্যগুলো পড়ার চেষ্টা করি। বিষয়টা এমন নয় যে ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ সেনেগালিজ আমাকে লিভারপুল ছাড়ার পরামর্শ দিচ্ছে।’

লিভারপুল ছাড়ার পর জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখে মানের যোগ দেবার বিষয় নিয়ে ট্রান্সফার মার্কেটে গুঞ্জন রয়েছে। গত সপ্তাহে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে লিভারপুলের হয়ে খেলার পর নিজের ভবিষ্যত নিয়ে কথা বলার ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত মানে এ সম্পর্কে কিছুই বলেননি। সেনেগালে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মানে বলেছেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আবারো আপরাদের সাথে কথা হবে। তবে কোনকিছুই তাড়াহুড়ো করে করাটা ঠিক না।’

বর্তমানে আফ্রিকার বর্ষসেরা খেলোয়াড় ৩০ বছর বয়সী মানে ১২ মিনিটে পেনাল্টি থেকে সেনেগালকে এগিয়ে দেন। ২২ মিনিটে বেনিনের গোলরক্ষক সাটুরনিন আলাবে মানের প্রথম শটটি রুখে দিলেও ফিরতি প্রচেষ্টায় তিনি বল জালে জড়িয়ে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ৫১ মিনিটে মিডফিল্ডার সেসি ডি’আলমেইডা সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠত্যাগে বাধ্য হলে ১০ জনের দলে পরিনত হয় বেনিন। এই সুযোগে আরো একটি স্পট কিক থেকে ৬০ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মানে। ৮৮ মিনিটে জুনিয়র ওলাইটান বেনিনের হয়ে এক গোল পরিশোধ করলেও তা শেষ পর্যন্ত সান্তনাসূচক গোল হয়েই স্কোরশিটে ছিল।

পরের ম্যাচে আগামী মঙ্গলবার রুয়ান্ডা সফরে যাবে সেনেগাল। রুয়ান্ডা এ্যাওয়ে ম্যাচে মোজাম্বিকের সাথে ১-১ গোলের ড্র দিয়ে বাছাইপর্বের মিশন শুরু করেছে। সেনেগালের থেকে পিছিয়ে ও বেনিনের থেকে এগিয়ে তারা এল-গ্রুপে রুয়ান্ডা দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। ফরাসী কোচ মিখায়েল ডুসুয়ারের বিদায়ের পর অন্তর্বর্তীকালীন কোচ মৌসা লাটোনজির অধীনে খেলতে নেমেছিল রুয়ান্ডা।

এদিকে ফ্রান্সের নীচু সারির লিগের কোচিং অভিজ্ঞতা নিয়ে মালির বস হিসেবে এরিক চেলের জাতীয় দলে দুর্দান্ত অভিষেক হয়েছে। তার অধীনে কাল বাছাইপর্বে কঙ্গোকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে শুভ সূচনা করেছে মালি। ম্যাচ শুরুর মাত্র এক মিনিটের মধ্যে মোহাম্মদ কামারা মালিয়ানদের এগিয়ে দেন। এল বিলাল টোরের দুই গোলের সাথে খালিফা কোলিবালির এক গোলে বিরতির আগে ৪-০ গোলে এগিয়ে যায় মালি।

গাম্বিয়ার থেকে গোল ব্যবধানে এগিয়ে বড় এই জয়ে গ্রুপ-জি’র শীর্ষে অবস্থান করছে মালি। আলবি জ্যালোর একমাত্র গোলে গাম্বিয়া সাউথ সুদানকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে। এ বছরই প্রথমবারের মত আফ্রিকান নেশন্স কাপের মূল পর্বে খেলেছে গাম্বিয়া। নিজেদের থেকে উপরের র‌্যাঙ্কে থাকা তিউনিশিয়া ও গিনিকে হারানোর পর ক্যামেরুনে অনুষ্ঠিত মূল পর্বে কোয়ার্টার ফাইনালে মালির কাছে পরাজিত হয়ে বিদায় নিয়েছিল গাম্বিয়া। আলজেরিয়ান কোচ হামেল বেলমাডির গত আসরে মূল পর্বের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় ও ২০২২ বিশ্বকাপের প্লে-অফে ক্যামেরুনের বিপক্ষে পরাজয়ের পর দলে বেশ কিছু পরিবর্তন করে কাল উগান্ডার বিপক্ষে দল সাজিয়েছিলেন। অনেকটা নতুনদের নিয়ে গড়া দলটি গ্রুপ-এফ’র প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে উগান্ডাকে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে। ওয়েস্ট হ্যামের ফরোয়ার্ড সাইড বেনরাহমা দল থেকে বাদ পড়েছেন। অন্যদিকে ইনজুরির কারনে খেলতে পারেননি ম্যানচেস্টার সিটি উইঙ্গার রিয়াদ মাহারেজ।