হাবিপ্রবিতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

হাবিপ্রবিতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর আয়োজনে “ Academic & Research Collaboration and MoU Signing Ceremony ” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) মাননীয় সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ ও হাবিপ্রবির সম্মানিত ট্রেজারার প্রফেসর ড. বিধান চন্দ্র হালদার, কো-অর্ডিনেটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইকিউএসি এর পরিচালক প্রফেসর ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন হাবিপ্রবির মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান। আরও উপস্থিত ছিলেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) সম্মানিত ট্রেজারার, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি), ইকো-সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন এবং কারিতাস বাংলাদেশের প্রতিনিধি (ইএসডিএ), হাবিপ্রবির বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, অধ্যাপকবৃন্দসহ অন্যান্য শিক্ষক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ।

এ সময় সেমিনারের প্রধান অতিথি ইউজিসি’র মাননীয় সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, আমরা অনেক এগিয়েছি কিন্তু আজ থেকে ৩০/৪০ বছর আগের সিঙ্গাপুর বা মালয়েশিয়ার কথা যদি আমরা চিন্তা করি তবে সে তুলনায় আমরা পিছিয়ে আছি। প্রথম ও দ্বিতীয় ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভ্যুলিউশনে আমরা দেখেছিলাম মেশিন মানুষকে রিপ্লেস করেছিল।

তৃতীয় ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভ্যুলিউশন অতিক্রম করে আমরা এত দ্রুত চতুর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভ্যুলিউশনে প্রবেশ করেছি যে বুঝতেই পারিনি। তিনি বলেন, এই যুগে মানুষ মানুষকে রিপ্লেস করবে অর্থাৎ যে দক্ষ সে কম দক্ষ বা অদক্ষ মানুষকে রিপ্লেস করবে। তাই আমাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো দক্ষ জনগোষ্টি তৈরি করা।

এই দক্ষ জনগোষ্টি তৈরি করার দায়িত্ব শিক্ষকদের কাঁধে। এক্ষেত্রে আমরা নিজেরাই যদি ঠিকমতো গবেষণা না করি তাহলে এটা সম্ভব না। আমাদের সম্পদ সীমিত, এই সীমাবদ্ধতা মেনে নিয়েই কাজ করে যেতে হবে। পরিশেষে এ ধরণের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য তিনি হাবিপ্রবির মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর ও আইকিউএসি কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

বিশেষ অতিথি বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ বলেন, এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর শুধু কাগজে কলমে সীমাবদ্ধ রাখলেই হবে না। এর বাস্তবায়ন অত্যন্ত জরুরী। এজন্য আমাদেরকে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে।

এ সময় হাবিপ্রবির মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান বলেন, আজ হাবিপ্রবির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। তিনি বলেন, বর্তমানে শিক্ষার মুল লক্ষ্যই হলো গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করা। বিশেষ করে আমাদের জাতির পিতা যে সোনার বাংলার স্বপ্ন নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছিলেন তা বাস্তবায়নে এবং উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যাচ্ছেন তারই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই উন্নত সমৃদ্ধ দেশ গঠনের জন্য দক্ষ মানবসম্পদের পাশাপাশি উন্নত গবেষণা হওয়া প্রয়োজন। বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর প্রধান কাজ দুটিই হলো দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি করা এবং ভালো গবেষণা করা। পরিশেষে তিনি সেমিনারে উপস্থিত হওয়ার জন্য ইউজিসি’র মাননীয় সদস্য, বেরোবি এর মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলরসহ উপস্থিত সকল অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সেমিনারে প্রাথমিকভাবে ৫ টি প্রতিষ্ঠানের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এগুলো হলো মাভাবিপ্রবি, বেরোবি, শেকৃবি এবং কারিতাস ও ইএসডিও।