পরীমনির আবেদন মঞ্জুর করলেন আদালত

পরীমনির আবেদন মঞ্জুর করলেন আদালত

বিনোদন

মাদক মামলায় নায়িকা পরীমনিকে সশরীরে আদালতে উপস্থিত হতে হবে না। তার শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকার বিশেষ আদালত-১০ এর বিচারক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

এদিন পরীমনির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত এ বিষয়ে আদালতের আদেশ চেয়ে আবেদন করেছিলেন।

এর আগে নীলাঞ্জনা রিফাত বাদীকে জেরা করেন। জেরায় বিবাদীপক্ষ মামলার বাদী র‌্যাবের উপসহকারী পরিচালক মো. মজিবুর রহমানকে পরীমনির বাসা থেকে মাদক উদ্ধারের বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন।

জেরা শেষে আদালত আগামী ১৯ জুলাই পরবর্তী শুনানির তারিখ নির্ধারণ করেন।

গত বছরের ৪ আগস্ট অভিযান চালিয়ে পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাব। অভিযানে নতুন মাদক এলএসডি, মদ ও আইস উদ্ধার করা হয়। তার ড্রয়িংরুমের কাভার্ড, শোকেস, ডাইনিংরুম, বেডরুমের সাইড টেবিল ও টয়লেট থেকে বিপুল পরিমাণ মদের বোতল উদ্ধার করা হয়। তার পরদিন গত ৫ আগস্ট র‌্যাব বাদী হয়ে রাজধানীর বনানী থানায় পরীমনি ও তার সহযোগী বিপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলায় দায়ের করে।

গত ১ মার্চ ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১০ এর বিচারক নজরুল ইসলামের আদালতে মামলার বাদী র‌্যাব-১ এর কর্মকর্তা মজিবর রহমান সাক্ষ্য দেন। এর মধ্য দিয়ে এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি আদালত অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে আসামি পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচারের আদেশ দেন। ২০২১ সালের ৪ অক্টোবর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল আদালতে পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।