ইউক্রেনের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন বিক্রির পরিকল্পনা নিয়ে মুখ খুলল রাশিয়া

ইউক্রেনের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন বিক্রির পরিকল্পনা নিয়ে মুখ খুলল রাশিয়া

আন্তর্জাতিক

ইউক্রেনের কাছে যুক্তরাষ্ট্র হেলফায়ার মিসাইল বহনে সক্ষম চারটি এমকিউ-ওয়ানসি গ্রে ঈগল ড্রোন বিক্রির পরিকল্পনা করেছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। তবে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধক্ষেত্রে ওই ড্রোনের ব্যবহার মস্কোর সামরিক অভিযানের প্যারামিটারে কোনো পরিবর্তন আনবে না বলে জানিয়েছে রাশিয়া। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইউক্রেনে পশ্চিমা অস্ত্র বিশেষ অভিযানের প্যারামিটারে কোনো পরিবর্তন আনবে না। বিশেষ অভিযানের লক্ষ্য অর্জিত হবে। তবে এটি ইউক্রেনের জন্য আরও দুর্ভোগ নিয়ে আসবে।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের শহর সেভেরোদনেৎস্কে রুশ আক্রমণ প্রতিহত করতে ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার পরিকল্পনা করে যুক্তরাষ্ট্র ‘আগুনে ঘি ঢালছে’ বলে অভিযোগ করেছিল রাশিয়া।

এর আগে,মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র এবং যুদ্ধের আরও অস্ত্র সরবরাহ করবে। যাতে যুদ্ধক্ষেত্রে সুনির্দিষ্টভাবে লক্ষ্যে আঘাত হানা যায়।

তিনি বলেন, আমরা ইউক্রেনকে জ্যাভলিন অ্যান্টি-ট্যাংক মিসাইল, স্টিংগার অ্যান্টিএয়ারক্রাফ্ট মিসাইল, শক্তিশালী আর্টিলারি এবং রকেট সিস্টেম, রাডার, মনুষ্যবিহীন আকাশযান, এমআই-১৭ হেলিকপ্টার এবং গোলাবারুদসহ উন্নত অস্ত্র সরবরাহ চালিয়ে যাব।

বাইডেন প্রশাসনের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে এম ১৪২ হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেমও রয়েছে, যা রুশ হামলা মোকাবিলায় বেশ ‘গুরুত্বপূর্ণ’ বলে মাসখানেক আগে জানিয়েছিলেন ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান।