রাজশাহীতে অবৈধভাবে চলছে ১৬৪ ক্লিনিক, ৪০টি সিলগালা

রাজশাহীতে অবৈধভাবে চলছে ১৬৪ ক্লিনিক, ৪০টি সিলগালা

রাজশাহী

রাজশাহী জেলা ও মহানগরী এলাকায় ১৬৪টি অবৈধ ডায়াগনস্টিক, ক্লিনিক ও হাসপাতাল চিহ্নিত করা হয়েছে। এর মধ্যে অবৈধ এবং অননুমোদিত ৪০টি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

এছাড়া তিনটি ক্লিনিককে অর্থদণ্ড করার পাশাপাশি সতর্ক করা হয়েছে। বুধবার রাতে রাজশাহী সিভিল সার্জনে দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে, গত চার দিনের অভিযানে রাজশাহী মহানগরী ও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ১৬৪টি অবৈধ ডায়াগনস্টিক, ক্লিনিক ও হাসপাতাল চিহ্নিত করা হয়। সব শর্ত পূরণ না করে ও লাইসেন্সপ্রাপ্তির আগে এসব প্রাইভেট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান কোনো কার্যক্রম চালাতে পারবে না।

যেসব ক্লিনিক ও হাসপাতাল ইতোমধ্যে লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছে, সেসব প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন ও সরেজমিন সুবিধাদি যাচাই-বাছাই শেষে লাইসেন্স দেওয়া হবে।

রাজশাহী সিভিল সার্জন অফিসসূত্রে জানা গেছে, গত চার দিনে রাজশাহীতে ৪০টি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পুরোপুরি সিলগালা করা হয়েছে। রাজশাহীর তানোর উপজেলার প্রাইম ডায়াগনিস্টক সেন্টার, চারঘাটের বিএম ক্লিনিক, নিলিমা ক্লিনিক, মিম কমিউনিটি হাসপাতাল বন্ধ করা হয়েছে।

এদিকে জেলার বাগমারার সাফল্য ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ডক্টর ক্লিনিক, হামিরকুৎসা ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ওরিন ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ওরিয়ন হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রয়েল আল্ট্রাসাউন্ড অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক, ডা. আব্দুল হাদী হেলথ কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও নিউ বাগমারা ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করা হয়েছে।

এ ছাড়া পবা, দুর্গাপুর, বাঘা, গোদাগাড়ী, মোহনপুরে বিভিন্ন ক্লিনিককে জরিমানা করা হয়েছে। আর ইসলামিয়া জেনারেল হাসপাতাল এবং ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে।

এদিকে রাজশাহী মহানগরীর রাজাপাড়া থানাধীন লক্ষ্মীপুরের নিউরো কেয়ার, মেডিকেল কলেজ গেটের সামনের শাহ মখদুম ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আর দি লাইফ ক্লিনিক ও ডায়গনস্টিক সেন্টারকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়।

রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মোহাম্মদ ফারুক বলেন, এই অভিযান শুধু রাজশাহীকেন্দ্রিক কোনো বিষয় নয়। সারা দেশেই অনিবন্ধিত ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিকগুলোতেই অভিযান চালানো হচ্ছে।

সিভিল সার্জন আরও জানান, রাজশাহী জেলায় এ ধরনের ১৬৪টি অবৈধ ডায়াগনস্টিক ও ক্লিনিক চিহ্নিত করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।